ঢাকা, রোববার 2 September 2018, ১৮ ভাদ্র ১৪২৫, ২১ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মিয়ানমারে ‘ভৌতিক জাহাজ’ নিয়ে তোলপাড়!

বিবিসি, এএফপি : মায়ানমারের পুলিশ ইয়াঙ্গুনে বিশাল একটি জাহাজের সন্ধান পেয়েছে। জরাজীর্ণ, মরচে পড়া কন্টেনারবাহী জাহাজটি জনমানবশূন্য। গত সপ্তাহে বাণিজ্যিক রাজধানী ইয়াঙ্গুনের শহরতলী থংওয়ার উপকূলে ভেসে আসে বিশাল জাহাজটি। জাহাজটিতে নেই কোনো নাবিক, না আছে পণ্য। জেলেরা এটিকে ‘ ভৌতিক জাহাজ’ আখ্যা দিয়েছেন। ৫৮০ ফুট দৈর্ঘ্যের বিশাল জাহাজের নাম ‘স্যাম রাতুলাঙ্গি পিবি ১৬০০’।পুলিশ জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় থামা সেইতা গ্রাম থেকে সাত কিলোমিটার দূরে জাহাজটি প্রথম চোখে পড়ে। পরে জেলেরা বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানায়। এরপর গত বৃহস্পতিবার নৌবাহিনী ও পুলিশের সদস্যরা জাহাজে গিয়ে তল্লাশি করে সেখানে কাউকে পায়নি। ফেসবুকে দেয়া এক বিবৃতিতে ইয়াঙ্গুন পুলিশ জানিয়েছে, জাহাজটি ইন্দোনেশিয়ার পতাকাবাহী। এটি সৈকতে পতিত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। ইনডিপেনডেন্ট ফেডারেশন অব মায়ানমার সিফারার্সের জেনারেল সেক্রেটারি অং কিও লিন মায়ানমার টাইমসকে জানান, জাহাজটি এখনো ব্যবহারের উপযোগী। জাহাজটি সম্প্রতি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। তবে তার সন্দেহ, নিশ্চয়ই এর পেছনে কোনো কারণ আছে।বিশ্বজুড়ে জাহাজের গতিবিধি পর্যবেক্ষণকারী মেরিন ট্রাফিক ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, জাহাজটি ২০০১ সালে তৈরি, দৈর্ঘ্য ৫৮০ ফুট। বার্তাসংস্থার খবরে বলা হয়েছে, মিয়ানমারে চোখে পড়ার আগে সর্বশেষ রেকর্ড অনুয়ায়ী জাহাজটি ২০০৯ সালে তাইওয়ান উপকূলে ছিল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ