ঢাকা, সোমবার 3 September 2018, ১৯ ভাদ্র ১৪২৫, ২২ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধে যুগোপযোগি আইন চাই

গতকাল রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের উদ্যোগে কলম বিরতি কর্মসূচি পালন করা হয় -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম বিএমএসএফ’র কলম বিরতির সমাবেশে বক্তারা বলেন, সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধে যুগোপযোগি আইন চাই। পাবনার নারী সাংবাদিক নদীসহ দেশের সকল সাংবাদিক হত্যার বিচার দাবি।
গতকাল রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত এক সমাবেশে তাঁরা এই দাবি জানায়। ঢাকা জেলা কমিটির সভাপতি মুসা মোরশেদের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম বিএমএসএফ’র প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর, বিএমএসএফ’র আইন উপদেষ্টা এ্যাড. কাওসার হোসাইন, সেভ দ্য রোড-এর প্রতিষ্ঠাতা মোমিন মেহেদী ও চিত্রনায়ক যুবরাজ খান, সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাইনুল হাসান মৃধা, কার্যনির্বাহী সদস্য নান্টু লাল দাস, ঢাকা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক উজ্জল ভূঁইয়া, আলীয়ার রাফি রতন, রফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক কবির নেওয়াজ, দীন ইসলাম, তারিকুল ইসলাম, শামসুল আলম তুহিন, ময়নাল হোসেন, শহীদুল ইসলাম, মো. সুমন, সুমাইয়া আক্তার তুলি, কেয়া মনি পিয়া, খায়রুল হাসান, মো. মামুন, রিতা আক্তার রিয়া প্রমুখ। কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি দেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় পালিত হয়।
বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ) ঢাকা জেলা কমিটির আয়োজনে দেশব্যাপী সাংবাদিকদের কলম বিরতির সমাবেশে বক্তারা বলেছেন, সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধে যুগোপযুগি আইন চাই। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশে ৩৯ জন সাংবাদিক হত্যার শিকার হন। কিন্তু সাংবাদিক হত্যার বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারণে এই মাত্রা দীর্ঘতর হচ্ছে। যার অন্যতম উদাহরণ খুলনার সাংবাদিক মুকুল রানা হত্যাকাণ্ডের বিচার ২০ বছরেও সম্পন্ন না হয়ে ঝুলে আছে। এমতবস্থায় মফম্বলের হাজার সাংবাদিক ক্রমাগত নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। উত্তরণে সরকারের আশু পদক্ষেপ প্রয়োজন। এ সময় বক্তরা সুবর্ণা নদীর হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনতে সরকারের প্রসাশনের প্রতি জোর দাবি জানান। এছাড়াও সাংবাদিকের নামে মিথ্যা মামলা-হামলা, নির্যাতন ও হত্যাকান্ড বন্ধে সরকারের প্রতি যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ