ঢাকা, সোমবার 3 September 2018, ১৯ ভাদ্র ১৪২৫, ২২ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬ ॥ আহত ৭৫

সংগ্রাম ডেস্ক : গতকাল রোববার দুটি পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ছয়জন নিহত ও ৭৫ জন আহত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রংপুরে দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত ও ৫০ জন আহত হন। অপর দুর্ঘটনাটি ঘটেছে মিরসরাইয়ের বারইয়ারহাটে রেলক্রসিংয়ে। একটি যাত্রীবাহী বাসকে ট্রেন ধাক্কা দিলে একজন নিহত ও ২৫ জন আহত হন।
রংপুর অফিস ঃ রংপুরে দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী ও শিশু সহ ৫ জন নিহত এবং ৫০ জন আহত হয়েছেন।
গতকাল রোববার দুপুর ১২টার দিকে নগরীর সিও বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে দুই বাসের প্রায় ৫০ যাত্রী আহত হয়েছেন। নিহত ৫ জনের মধ্যে ৩ জনের পরিচয় পাওয়া  গেছে। এরা হলেন, গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তালুক বর্মন গ্রামের রুবেল হোসেনের স্ত্রী রোকসানা (২০), নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ি গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী অজিমন (৪৫) এবং পঞ্চগড়ের শিশু শাহীন মিয়া (১২)।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বগুড়া থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী বিআরটিসির একটি বাস সিও বাজার এলাকায় পৌঁছালে একটি অটো রিকসাকে সাইট দিতে গিয়ে বিপরীতমুখী দিনাজপুর থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামী অপর একটি বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজন ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশু শাহীন মারা যায়। রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল-এ) সাইফুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শাহীনুর রহমান জানান, দুর্ঘটনায় আহত ২৫ জন এখানে ভর্তি হয়েছেন। ৪টি ওয়ার্ডে আহতদের চিকিৎসা চলছে। এদের মধ্যে ১৬ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহত অন্যরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি চলে গেছেন।
মিরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের বারইয়ারহাট পৌর বাজারের রেলক্রসিংয়ে উঠে পড়া যাত্রীবাহী বাসে ট্রেনের ধাক্কায় একজন নিহত এবং আরও ২৫ জন আহত হয়েছেন । গতকাল রোববার ভোররাত ৩টা ৪০ মিনিটের সময় ঢাকা দিকে খাগড়াছড়িগামী এস আলম পরিবহনের একটি বাস রেলক্রসিং পার হওয়ার সময় ময়মনসিংহ থেকে চট্টগ্রামগামী বিজয় ট্রেনের সামনে পড়ে যায়। এতে ট্রেনের ধাক্কায় বাসটি উল্টে লাইনের ওপর পড়ে যায়। ওই অবস্থায় বাসটিকে ঠেলে প্রায় ৫০০ মিটার সামনে নিয়ে ট্রেনটি থামে। দুর্ঘটনার সময় রেলক্রিসিয়ে কোন ভেরিয়ার দেওয়া হয়নি।
দুর্ঘটনায় আহতরা হলো মংশি প্রু মার্মা (৪৭), আবদুল করিম (১৭), নিউটন চাকমা (২৮), কমিষ্ট ত্রিপুরা (১৯), দিপ্তী চাকমা (৫৬), বার্ম বিলা চাকমা (৬০), দোস ত্রিপুরা (২৮), কজু ত্রিপুরা (২৩), নিরেশ চাকমা (২৯), সুজন ত্রিপুরা (২৮), প্রমি ত্রিপুরা (২৮), লোলন দেওয়ান (২৩), জু চাকমা (৬০), মিনা চাকমা (৩৫), ডুসুম বীথি (৬০), সুনিমল চাকমা (৫৬), অজ্ঞত (৩৫), বিজিবি সদস্য মারুফ হোসেন (২৫), অজ্ঞাত (৩০), গিতা দাশ (২৮)। আহতদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সৈয়দ নুরুল আবছার বলেন, বাস দুর্ঘটনার ঘটনায় হাসপাতালে ২০ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা সুনির্মল চাকমা নামে একজন মারা গেছেন। আহত ১৩ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (চমেক) পাঠানো হয়েছে। যার মধ্যে ২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
সীতাকুন্ড জিআরপি পুলিশের ইনচার্জ এসআই দেলোয়ার হোসেন জানান, দুর্ঘটনায় খাগড়াছড়ি জেলার সুনির্মল চাকমা (৫৫) নিহত হয়েছেন। তিনি খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসনে কাজ করতেন বলে জানা গেছে। আহত ২৫ জনের মধ্যে বাসের চালকের অবস্থা গুরুতর। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে চালকসহ মোট ১৩ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, বারইয়ারহাট রেলক্রসিয়ে গিয়ে গেইটম্যান মোঃ আরিফকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ট্রেন আসার পূর্বে রেলক্রসিং বন্ধ করা হয়নি। যার ফলে বাসটি রেল লাইনে উঠে যায়।
দুর্ঘটনার সময় দায়িত্বে থাকা রেলওয়ের চিনকী আস্তান ষ্টেশান মাষ্টার ওয়াহিদুর রহমান দাবী করেন, ট্রেন আসার পূর্বে রাত ৩টা ৪০ মিনিটে গেইটম্যান মোঃ আরিফকে স্টেশান থেকে টেলিফোন করা হয় রেলক্রসিয়ে ভেরিয়ার দেওয়ার জন্য। কিন্তু কয়েকবার কল দেওয়ার পরও আরিফ টেলিফোন উঠায়নি। ফলে ময়মনসিংহ থেকে ছেড়ে আসা বিজয় এক্সপ্রেসের সামনে পড়ে যায় বাসটি।
চট্টগ্রাম বিভাগীয় রেলওয়ে ম্যানেজার মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বারইয়ারহাটে রেলক্রসিয়ে দুর্ঘটনার তদন্তে রেলওয়ের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কর্মকর্তা (ডিটিও) ফিরোজ ইফতেখারকে প্রধান করে ৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৩ দিনের মধ্যে কমিটি রিপোর্ট প্রদান করবেন। এছাড়া দুর্ঘটনায় চিনকী আস্তানা ষ্টেশান মাষ্টার গেইটম্যানকে টেলিফোন করেন নাই বলে স্বীকার করেছেন। এবিষয়ে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট পাওয়ার পর সীদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ