ঢাকা, সোমবার 3 September 2018, ১৯ ভাদ্র ১৪২৫, ২২ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রামে কোরিয়ান ইপিজেডে এলজির ভিআরএফ

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামে কোরিয়ান রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলে (কেইপিজেড) বিশেষভাবে কেন্দ্রীয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা নির্মাণ করতে যাচ্ছে বহুজাতিক কোরীয় কোম্পানি এলজি বাংলাদেশ। এরই অংশ হিসেবে কেইপিজেডের দ্বিতীয় রেস্ট হাউজে এলজির অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ভ্যারিয়েবল রেফ্রিজারেন্ট ফ্লো (ভিআরএফ) সিস্টেম স্থাপন করা হবে।বুধবার চট্টগ্রামে কেইপিজেড করপোরেশন (বিডি) লিমিটেড এবং এলজি বাংলাদেশের মধ্যে এ সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। কোরিয়ান ইপিজেড করপোরেশন বিডি-এর এমডির কার্যালয়ে আয়োজিত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে এলজি বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডি কে সন এবং কেইপিজেড করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শাহজাহান। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এলজি বাংলাদেশের হেড অব কনজ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স মাহমুদুল হাসান, বাটারফ্লাই মার্কেটিংয়ের উপ-মহাব্যবস্থাপক জহুরুল হক ও উপ-ব্যবস্থাপক এ টি এম মাহফুজ হাসান। 
ভিআরএফ সিস্টেম একটি নির্দিষ্ট স্থাপনার পুরোটা কেন্দ্রীয়ভাবে সমান মাত্রায় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।
নির্মিতব্য ৩২২ টনের সিস্টেমটি কেইপিজেডের চার তলাবিশিষ্ট ভবনের দ্বিতীয় রেস্ট হাউজের শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ করবে। এই সিস্টেমে অন্তর্ভুক্ত কমফোর্ট কুলিং এবং ডুয়াল সেন্সিং সিস্টেম ভবনের তাপমাত্রা এবং আদ্রতা স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরিমাপ করে আরামদায়ক শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ করে। ইনভার্টার কম্প্রেসর বিদ্যুৎ সাশ্রয় নিশ্চিত করে। এর স্বীকৃতি হিসেবে ভিআরএফ সিস্টেম এনার্জি স্টার এবং লিড সনদ পেয়েছে।এলজি বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডি কে সন বলেন, “সহজে ব্যবহারযোগ্য এই ভিআরএফ সিস্টেম বড় মার্কেট, শিল্প কারখানা, হাসপাতাল, গার্মেন্টস এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মত বড় স্থাপনার জন্য খুবই উপকারী ও সাশ্রয়ী। ইতিমধ্যে এশিয়া প্যাসফিক ইউনিভার্সিটি, গ্রামীণফোন, বেঙ্গল গ্রুপসহ বেশকিছু বড় স্থাপনা-কার্যালয়ে এলজির ভিআরএফ সিস্টেম ব্যবহৃত হচ্ছে।”

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ