ঢাকা, শুক্রবার 16 November 2018, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিকের ৭ বছরের জেল

ওয়া লোন ও কিয়াও সোয়ে

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে ৭ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেছে মিয়ানমারের একটি আদালত।

মিয়ানমারের রাখাইন স্টেটে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা নিপীড়ন ও গণহত্যার তথ্য উপাত্ত সংগ্রহের সময় মিয়ানমারে আটক করা হয় এই দুই রয়টার্স সাংবাদিককে আটক করা হয়েছিল। 

ইয়াঙ্গুনের জেলা জজ আদালত আজ ৩ সেপ্টেম্বর সোমবার ওই দুই সাংবাদিকে রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করে তাদের সাত বছরের জেল দিয়েছেন। খবর নিউ ইয়র্ক টাইমস, হিন্দুস্তান টাইমস ও ইউএনবির।

রায় ঘোষণার সময় বিচারক ইয়ে লউইন বলেন, ওই দুই সাংবাদিক গোপনীয় নথি সংগ্রহ ও প্রাপ্তি উপনিবেশিক যুগের অফিসিয়াল সিক্রেটস আইন ভঙ্গ করেছিলেন। এ জন্য তাদের দোষী সাব্যস্ত করে দণ্ডিত করা হয়েছে।

রয়টার্সের প্রধান সম্পাদক স্টিফেন জে অ্যাডলার রায়ের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, মিয়ানমারের জন্য, রয়টার্সের সাংবাদিক ওয়া লোন ও কিয়াও সো ওর জন্য এবং বিশ্বের সব সংবাদমাধ্যমের জন্য আজ একটি দুঃখের দিন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৪ আগস্ট রাতে তথাকথিত আরাকান স্যালভেশন আর্মি (আরসা) মিয়ানমারের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর হামলার পরদিন থেকে রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের উপর ব্যাপক গণহত্যা ও উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে দেশটির সামরিক বাহিনী। ওয়া লোন ও কিয়াও সোয়ে সেনাবাহিনীর নির্যাতন ও গণহত্যার উপর রিপোর্ট প্রকাশ করে আসছিলেন।

গত ডিসেম্বরে এই দুই সাংবাদিককে আটক করে পুলিশ।তাদের বিরুদ্ধে গোপন সরকারি নথিপত্র বহনের অভিযোগ আনা হয় । তবে তারা আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন।

রাখাইনে সেনা অভিযান শুরুর পর এ পর্যন্ত সাড়ে সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। মিয়ানমারে নিপীড়নের মুখে বাংলাদেশে এখন ১১ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা অবস্থান করছে।

সবশেষ রোহিঙ্গা ইস্যুর এক বছরের মাথায় দুই সাংবাদিকে ৭ বছরের জেল দিলো ইয়াঙ্গুনের জেলা জজ আদালত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ