ঢাকা, মঙ্গলবার 4 September 2018, ২০ ভাদ্র ১৪২৫, ২৩ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বিশৃঙ্খলার সুযোগে ত্রিপোলির জেল থেকে পালাল ৪০০ বন্দী

৩ সেপ্টেম্বর, রয়টার্স : কারাগারের কাছে প্রতিদ্বন্দ্বী সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর লড়াইয়ের সময় সৃষ্ট বিশৃঙ্খলার সুযোগ নিয়ে রাজধানী ত্রিপোলির একটি কারাগার থেকে ৪০০ বন্দি পালিয়ে গেছে। গত রোববার ঘটনাটি ঘটেছে বলে পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক লিবিয়ার বিচার বিভাগের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

গত সপ্তাহ থেকে ত্রিপোলির সবচেয়ে বড় সশস্ত্র দুটি গোষ্ঠী ত্রিপোলি রেভ্যুলুশনারিস ব্রিগেডস্ (টিআরবি) ও নওয়াসির সঙ্গে ত্রিপোলি থেকে ৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণপূর্বের টারহৌনা থেকে আসা সেভেন্থ ব্রিগেড বা কানিয়াতের তীব্র সংঘর্ষ শুরু হয়।

এ লড়াই ত্রিপোলির দক্ষিণাংশের এলাকাগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। ওই এলাকাতেই আয়িন জারা কারাগারটি অবস্থান।

লড়াই কারাগারের কাছাকাছি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ার পর সৃষ্ট বিশৃঙ্খলার সময় বন্দিরা কারাগারের দরজাগুলো খুলে ফেলে, রক্ষীরাও তাদের বাধা দিতে পারেননি বলে জানিয়েছেন বিচার বিভাগের ওই কর্মকর্তা। এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিচার বিভাগীয় পুলিশ একটি বিবৃতি দিয়েছিল, তিনি ওই বিবৃতিটি নিশ্চিত করেছেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স। 

তবে তিনি নিজের পরিচয় প্রকাশ না করার অনুরোধ করেছেন এবং বিস্তারিত আর কিছু জানাননি।

একই দিন পৃথক আরেকটি ঘটনায় বাস্তুচ্যুত তাওয়ারগা লোকজনের আশ্রয় কেন্দ্র আল ফালাহ শিবিরে একটি ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে দুই জন নিহত ও দুটি শিশুসহ সাত জন আহত হন বলে জানিয়েছেন তাওয়ারগা ইস্যু নিয়ে আন্দোলনরত ইমাদ এরগেহা। শনিবার ত্রিপোলির ইতালি দূতাবাসের নিকটবর্তী ওয়াদ্দান হোটেলে আরেকটি ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে তিন জন আহত হয়েছেন বলে হোটেলটির কর্মীরা জানিয়েছেন।

লিবিয়ার রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি এনওসি জানিয়েছে, বিদ্যুৎ কেন্দ্র ডিজেল সরবরাহের কাজে নিয়োজিত তাদের একটি ডিপোতে শনিবার রকেট হামলা হয়েছে।

পরিস্থিতি কতোটা নাজুক হয়ে পড়েছে তা তুলে ধরতে জাতিসংঘ সমর্থিত ত্রিপোলিভিত্তিক লিবীয় সরকার জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে। দাপ্তরিকভাবে ক্ষমতায় থাকলেও সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোকে নিয়ন্ত্রণের কোনো ক্ষমতা নেই ত্রিপোলির সরকারের। সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো এই সরকারের প্রতি সমর্থন ঘোষণা করলেও তারা স্বাধীনভাবেই ক্রার্যক্রম পরিচালনা করে।

এই পরিস্থিতিতে লড়াই অবসানের লক্ষ্যে সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোকে মঙ্গলবার দুপুরে ‘নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে জরুরি সংলাপে’ বসার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের লিবিয়া মিশন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ