ঢাকা, মঙ্গলবার 4 September 2018, ২০ ভাদ্র ১৪২৫, ২৩ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজধানীতে রোগী বাড়লেও ডেঙ্গু পরিস্থিতি উদ্বেগজনক নয় -মেয়র খোকন

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীতে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তদের সংখ্যা বাড়লেও পরিস্থিতি এখনও উদ্বেগজনক নয় বলে দাবি করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। গতকাল সোমবার ইস্কাটন গার্ডেন এলাকায় ডেঙ্গু প্রতিরোধে এডিস মশার লার্ভা, প্রজননস্থল শনাক্ত করা এবং তা ধ্বংসে বিশেষ ক্র্যাশ প্রোগ্রামের উদ্বোধনের সময় মেয়র বলেন, গত দুই-তিন বছরের তুলনায় এ বছর ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়েছে।“এবার ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কিছুটা হলেও বেড়েছে, তবে পরিস্থিতি উদ্বেগজনক নয়। এমনকি আতঙ্কিত হওয়ার মতো পরিস্থিতিও নয়। গত বছর চিকুনগুনিয়ার প্রাদুর্ভাব ছিল, এবার নেই।”
 ডেঙ্গু এবং চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে রাজধানীবাসীকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান মেয়র। তিনি বলেন, বাসা-বাড়ির পরিত্যক্ত টায়ার, ফুলের টব, এসির আউটারে জমে থাকা পানি পরিষ্কার রাখতে হবে। কোথাও পাঁচদিনের বেশি পানি জমতে দেবেন না। পাঁচদিনের বেশি পানি জমে থাকলে এডিস মশার বংশ বিস্তারের সম্ভাবনা থাকে। তাই আপনার একটু সচেতনতা আপনার প্রিয়জনের জীবনকে রক্ষা করতে পারবে।”
মশার বংশবৃদ্ধি রোধে ডিএসসিসির ৫৭টি ওয়ার্ডে একসঙ্গে ‘বিশেষ ক্র্যাশ প্রোগ্রাম’ শুরু হয়েছে বলে জানান মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। তিনি বলেন, ডিএসসিসির প্রতিনিধিরা প্রতিটি বাড়িতে গিয়ে কোথাও এডিস মশার লার্ভা পেলে তা ধ্বংস করে দিয়ে আসবে। পাশাপাশি নাগরিকদের সচেতন করবে।
উত্তর সিটি করপোরেশনেও ডেঙ্গুবিরোধী অভিযান শুরু করার আহ্বান জানান দক্ষিণের মেয়র।“কারণ মশার কোনো স্থান নেই। এক জায়গার মশা আরেক জায়গায় চলে যায়। তিনি বলেন, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় দ্রুতই একটি ডেঙ্গুমুক্ত শহর উপহার দেব। এজন্য নগরবাসীর সহযোগিতা প্রয়োজন।”
পরে নির্মাণাধীন নৌবাহিনীর তথ্যকেন্দ্র ভবনে মশার ওষুধ ছিটান। শিক্ষার্থী ও দোকানীদের হাতে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রতিনিধিরাও অংশ নেন।
ডিএসসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শেখ সালাহ উদ্দিন, কাউন্সিলর কামরুজ্জামান কাজল, হাসিবুর রহমান মানিকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ