ঢাকা, বুধবার 5 September 2018, ২১ ভাদ্র ১৪২৫, ২৪ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

যশোরে পুলিশের মামলায় প্রবাসী ও মক্কায় অবস্থানকারী হাজীও আসামী!

চৌগাছা (যশোর) সংবাদদাতা: যশোরের ঝিকরগাছা থানা পুলিশের দায়েরকৃত নাশকতার দুটি মামলায় সাবেক এমপি, উপজেলা বিএনপি-জামায়াতের নেতৃবৃন্দসহ আসামী করা হয়েছে ৬৮ জনকে। এর মধ্যে পৃথক দুই মামলায় আটক করা হয়েছে ২৪ জনকে। এসব মামলা থেকে বাদ পড়েনি পবিত্র হজ্ব পালনে সৌদী অবস্থানকারী বাবলু ও দীর্ঘদিন মালয়েশিয়া প্রবাসী মুজিবুল এলাহী মিঠুও।
জানা গেছে, গত ৩০ আগস্ট ঝিকরগাছা থানার এসআই কামরুজ্জামান জিয়া বাদী হয়ে দায়েরকৃত মামলায় আসামী করা হয়েছে সাবেক এমপি জামায়াত নেতা আবু সাঈদ মুহাম্মদ শাহাদৎ হুসাইন , উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হারুন অর রশীদ, সাধারণ সম্পাদক মোর্তজা এলাহী টিপু, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক খোরশেদ আলমসহ বিএনপি-জামায়াতর শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে। এই মামলায় ৯জন জেল হাজতে রয়েছেন। ওই মামলার ১২ নং আসামী মোবারকপুর গ্রামের গ্রিন বিশ্বাসের ছেলে মুজিবুল এলাহী মিঠু। তিনি দীর্ঘদিন ধরে মালয়েশিয়া অবস্থান করছেন বলে তার পরিবার জানিয়েছেন। অপরদিকে গত ১ সেপ্টেম্বর থানার এসআই আশরাফুল ইসলাম বাদী হয়ে ৩০ জনকে আসামী করে অপর একটি মামলা দায়ের করেছেন। যার মধ্যে ১৫ জনকে আটক করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এই মামলার ২৪ নং আসামী উপজেলার নাভারণ ইউনিয়নের হাড়িয়া গ্রামের হাজী নিজাম উদ্দিনের ছেলে বাবলুর রহমান। বাবলুর রহমানের পরিবার জানান, গত এক মাস আগে হজ্ব পালনের উদ্দেশ্যে বাবলু সৌদি আরবে গেছেন। তিনি বর্তমানে মক্কাতে অবস্থান করছেন। আগামী ৫/৬ তারিখে তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে। তাকে আসামী করা নিছক হয়রানি বলে মনে করেন তার পরিবার। এদিকে আসামীর তালিকায় এ ধরনের ভৌতিক নাম থাকায় এলাকায় মানুষের মাঝে হাস্যরসের সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে বলাবলি করছে মক্কা থেকে দেশে নাশকতা বিরাট ব্যাপার। এদিকে এসব মামলাকে শতভাগ মিথ্যা দাবি করে মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন বিএনপি জামায়াতের নেতৃবৃন্দ। সাবেক সংসদ সদস্য শাহাদৎ হুসাইন,বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির খুলনা বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, যশোর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড: সাবেরুল হক সাবু, জামায়াত নেতা রেজাউল করিম, নাজির হুসাইনসহ নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ