ঢাকা, বৃহস্পতিবার 6 September 2018, ২২ ভাদ্র ১৪২৫, ২৫ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

দাবি পূরণ না হলে ২৭ সেপ্টেম্বর শিক্ষক সমাবেশ থেকে মন্ত্রণালয় ঘেরাও

স্টাফ রিপোর্টার: চলতি মাসের ২০ তারিখের মধ্যে এমপিওভুক্ত ৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীদের বহু প্রত্যাশিত ৫% ইনক্রিমেন্ট ও বৈশাখী ভাতা বকেয়াসহ প্রদান এবং এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান একযোগে জাতীয়করণ ঘোষণা করা না হলে ২৭ সেপ্টেম্বর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে শিক্ষক সমাবেশ থেকে পরবর্তীতে শিক্ষাভবন ও শিক্ষামন্ত্রণালয় ঘেরাও করা হবে বলে জানান শিক্ষক নেতৃবৃন্দ।
গতকাল বুধবার বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় সভাপতি ও এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ লিয়াঁজো ফোরামের মুখপাত্র মোঃ নজরুল ইসলাম রনি এবং বাশিসের মহাসচিব মোঃ রবিউল আলম এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, শিক্ষান্ত্রণালয় ও শিক্ষাভবনের কর্মকর্তাদের কাজের সমন্বয় না হওয়ায় এবং আমলাতান্ত্রিক জটিলায় দীর্ঘদিনেও শিক্ষক সমাজের বহু প্রত্যাশিত দাবীসমূহ পূরণ হচ্ছে না। আর একারণে বর্তমান সরকারের ভাবমর্যাদা দারুণভাবে ক্ষুন্ন হচ্ছে। ২০১৫ সালে ৮ম জাতীয় পে-স্কেল বাস্তবায়ন হলেও সরকারি প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ৫% ইনক্রিমেন্ট এবং প্রধানমন্ত্রীর অর্জন বৈশাখী ভাতা এখনো এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের দেওয়া হলো না। গত ১০ জানুয়ারি থেকে ২৯ জানুয়ারি পর্যন্ত জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ লিয়াঁজো ফোরামের ব্যানারে অবস্থান ধর্মঘট ও অনশন চলাকালীন সময়ে সরকারের পক্ষ থেকে আশ্বাস দেওয়া হলেও অদ্যাবধি তা কার্যকর করা হয়নি। এ জন্য দেশব্যাপী শিক্ষক সমাজে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।
২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে শিক্ষক সমাজের প্রত্যাশিত দাবি মেনে না নিলে ২৭ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায়  জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে শিক্ষক সমাবেশ এবং পরবর্তীতে শিক্ষাভবন ও শিক্ষামন্ত্রণালয় ঘেরাও করা হবে বলে জানান শিক্ষক নেতৃবৃন্দ।
বিবৃতিতে আরো স্বাক্ষর করেন- বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি মোঃ আমির হোসেন, যুগ্ম-মহাসচিব মোঃ আবুল হোসেন মিলন, বাশিস ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমান, কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মোঃ জসিম উদ্দিন, এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ লিয়াঁজো ফোরামের উপদেষ্টা মুঞ্জুরুল আমিন শেখর, প্রেসিডিয়াম সদস্য মোঃ আলতাফ হোসেন, সহ.সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম, মোঃ এনামুল হক, কেন্দ্রীয় সদস্য মোঃ নূরুল ইসলাম, মোঃ শাহিন সিকদার ও মোঃ বেলায়েত হোসেন প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ