ঢাকা, বৃহস্পতিবার 6 September 2018, ২২ ভাদ্র ১৪২৫, ২৫ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে কিছু বলতে চায় না ভারত

স্টাফ রিপোর্টার : ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধণ শ্রিংলা বলেছেন, নির্বাচন বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। ভারত এ নিয়ে কথা বলতে চায় না। আমরা এই অবস্থানটি ধরে রাখতে চাই। গতকাল বুধবার বিকালে পররাষ্ট্র সচিব এম শহিদুল হকের সঙ্গে বেঠক শেষে নির্বাচন নিয়ে একাধিক প্রশ্নের জবাবে তিনি এভাবেই তার দেশের অবস্থান ব্যক্ত করেন। বিকাল তিনটা থেকে সোয়া চারটা পর্যন্ত প্রায় সোয়া ঘন্টার বৈঠকে দ্বি-পক্ষীয় সম্পর্কের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানান হাই কমিশনার। তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে সহযোগিতার প্রশ্নে ভারতের চলমান উদ্যোগগুলোর অনেক কিছুই কাছাকাছি সময়ে দৃশ্যমান হবে।
ভারতীয় হাইকমিশনার জানান, রেল এবং জ্বালানি খাতে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে কয়েকটি বড় প্রকল্পের কাজ শুর” হতে পারে। তিনি সাংবাদিকদের বলেন,আগামী কয়েক সপ্তাহে কয়েকটি বড় সফর হবে দুই দেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে। প্রাথমিকভাবে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অথবা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য এ সফরগুলো হতে পারে। আমরা ৫০০ মেগাওয়াট অতিরিক্ত বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা প্রায় শেষ করে ফেলেছি।
প্রসঙ্গত: ভারত থেকে আরও ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আনতে ভেড়ামারা এইচভিডিসি (হাই ভোল্টেজ ডিরেক্ট কারেন্ট) দ্বিতীয় বিদ্যুত সঞ্চালন লাইন উদ্বোধনের প্রস্তুতি চলছে। বর্তমানে ভারত থেকে ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে বাংলাদেশে। অন্যদিকে, ভারত থেকে আমদানি করা জ্বালানি তেল দেশের উত্তরাঞ্চলে সহজে সরবরাহ করতে স্থাপন করা হবে ‘ইন্দো-বাংলা ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন।
আগামী ৯-১০ অক্টোবর ঢাকায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে সাউথ এশিয়ান মেরিটাইম অ্যান্ড লজিস্টিকস ফোরাম (এসএএমএলএফ) ২০১৮-এর দ্বিতীয় সম্মেলন। ভারতের রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন, আগামী মাসে অনুষ্ঠেয় ওই আন্তর্জাতিক মেরিটাইম কনফারেন্সে ভারতের একটি বড় দল অংশ নেবে।
পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে কী নিয়ে আলোচনা হয়েছে জানতে চাইলে ভারতের রাষ্ট্রদূত হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, কয়েক সপ্তাহ পরপরই আমি পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে বৈঠক করি। আমাদের পক্ষে কী ঘটছে জানানোর জন্য এবং বাংলাদেশের অবস্থান জানার জন্য। আমরা আজকে সদ্য সমাপ্ত বিমসটেক সম্মেলন নিয়ে আলোচনা করেছি। এটি অত্যন্ত সফল কনফারেন্স হয়েছে এবং অনেকগুলো ভালো সিদ্ধান্ত হয়েছে। বাংলাদেশের রাজনৈতিক অবস্থা সম্পর্কে তার মতামত জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এ বিষয়ে আমি কোনও মন্তব্য করবো না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ