ঢাকা, শুক্রবার 7 September 2018, ২৩ ভাদ্র ১৪২৫, ২৬ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

পাকিস্তানকে হারিয়ে সেমির পথে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ১ (তপু বর্মন)-পাকিস্তান ০

স্পোর্টস রিপোর্টার : পাকিস্তানকে হারিয়ে সাফ সুজুকি কাপ ফুটবলের সেমিফাইনালে খেলার সম্ভাবনা উজ্জল করলো স্বাগতিক বাংলাদেশ। গতকাল বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে ১-০ গোলে পাকিস্তানকে হারিয়েছে জেমীর শিষ্যরা। হাই ভোল্টেজ ম্যাচে একমাত্র জয়সূচক গোলটি করেন তপু বর্মন। এই জয়ে গ্রুপ ‘এ’তে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠলো লাল-সবুজের জার্সিধারীরা। দুই-এ নেপাল, তিন-এ পাকিস্তান আর এক ম্যাচ হাতে রেখেই বিদায় নেয়া ভুটান সবার শেষে। দুই ম্যাচ শেষে বাংলাদেশের পয়েন্ট ৬, নেপাল ৩, পাকিস্তানের ৩ আর ভুটানের ০। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ১৯৪ আর পাকিস্তানের ২০১। নিজেদের প্রথম ম্যাচে তপু বর্মন এবং মাহবুবুর রহমান সুফিলের গোলে ভুটানকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল ইংলিশ কোচ জেমি ডের বাংলাদেশী শিষ্যরা। আর হাসান বশির এবং মোহাম্মদ রেজার গোলে নেপালকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল ব্রাজিল কোচ হোসে অ্যান্তোনিওর পাকিস্তানি শিষ্যরা। গ্রুপ ‘এ’র ম্যাচে সন্ধ্যা সাতটায় মাঠে নামে বাংলাদেশ-পাকিস্তান। ম্যাচের ১২ মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে উড়ে আসা বলে লাফিয়ে হেড করার সুযোগ নিতে চেয়েছিলেন আগের ম্যাচের গোলদাতা তপু বর্মন। তবে, পাকিস্তানের গোলরক্ষক ইউসুফ নিজের দখলে বল নিয়ে নেন। ১৬ মিনিটের মাথায় পাকিস্তানের গোলরক্ষককে গোলবার থেকে সামনে এগিয়ে আসতে দেখে প্রায় ৪০ গজ দূর থেকে শট নেন অধিনায়ক জামাল ভূইয়া। কিন্তু বল চলে যায় গোলবারের উপর দিয়ে।

বিরতির পর ম্যাচের ৫১ মিনিটে পাকিস্তানের গোলবারের ডানপ্রান্ত থেকে বল তুলে দেন সুফিল। তবে, সাদ উদ্দিন সেই বলের দখল নেয়ার আগেই বল ক্লিয়ার করেন পাকিস্তানের ডিফেন্ডাররা। ৫৬ মিনিটের মাথায় বাংলাদেশের ডিফেন্ডারের ভুলে বল পেয়ে যান পাকিস্তানের মোহাম্মদ আলি। তার সামনে ছিলেন বাংলাদেশের গোলরক্ষক শহিদুল আলম। জোরালো শট নিলেও শহিদুলের দারুণ সেভে সে যাত্রায় রক্ষা পায় বাংলাদেশ। ৬৮ মিনিটে ওয়ালি ফয়সালের তুলে দেয়া বলে পাকিস্তানের জালের সামনে থেকে হেড করেন জনি। তবে জালের দেখা পাননি। উল্টো পাকিস্তানের এক খেলোয়াড় তাকে আঘাত করেন। এ সময় বাংলাদেশের কোচ জেমি ডে মাঠের রেফারি আর সহকারী রেফারির কাছে পেনাল্টি চেয়ে বিতর্কে জড়ান। পাকিস্তানের রক্ষণকে চেপে ধরে বাংলাদেশ। ৭৩ মিনিটে বিশ্বনাথ ঘোষের বাড়ানো বলে পা লাগাতে পারলে গোল পেতে পারতেন সুফিল। ৮২ মিনিটে বিশ্বনাথকে ডি-বক্সের ডানদিকে বাজেভাবে ট্যাকল করেন পাকিস্তানের মোহাম্মদ রিয়াজ। হলুদ কার্ড দেখেন তিনি। ফ্রি-কিক নেন মামুনুল ইসলাম, জালের ঠিক সামনেই বল পান তপু বর্মন। তবে তার শট পাকিস্তানের জালের উপর দিয়ে বেরিয়ে যায়। বিশ্বনাথের লম্বা থ্রোয়িং থেকে ৮৫ মিনিটের মাথায় পাকিস্তানের ডি-বক্সের জটলা থেকে হেড করে গোল করেন তপু বর্মন (১-০)। ৮৮ মিনিটের মাথায় সুফিলের জায়গায় মাঠে প্রবেশ করেন শাখাওয়াত হোসেন রনি। যোগ করা অতিরিক্ত সময়ে জামাল ভূঁইয়ার জোরালো শট পাকিস্তানের গোলবারের বাইরে দিয়ে বেরিয়ে যায়। বাকি সময়ে আর কোনো গোল না হলে ১-০ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ