ঢাকা, শনিবার 8 September 2018, ২৪ ভাদ্র ১৪২৫, ২৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রূপগঞ্জে এক সপ্তাহে ৩ মামলা ॥ গ্রেফতার আতঙ্কে ঘর ছাড়া বিএনপি নেতাকর্মীরা

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে নাশকতার অভিযোগ এনে গত এক সপ্তাহে ৩টি মামলায় বিএনপি ও তার অঙ্গসংগঠনের শীর্ষ নেতাকর্মীসহ ১২৯ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের ৬ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে তল্লাশি চালাচ্ছে। এতে নেতাকর্মীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
 গত ৩১ আগষ্ট, বিএনপির ও তার অঙ্গ সংগঠনের ৩০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে নাশকতার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলায় কেন্দ্রীয় ওলামাদলের সহ-সভাপতি ও জেলা ওলামাদলের সভাপতি মুন্সি সামসুর রহমান খাঁন বেনু, জেলা ওলামাদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আমির হোসেন, উপজেলা ওলামাদলের সহ-সভাপতি নাছির মোল্লা ও ওলামাদল নেতা আলাউদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়।
 গত ৩ সেপ্টেম্বর, নাশকতার অভিযোগ এনে বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের ৩৫ নেতাকর্মীকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা এডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার, জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান মনির, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ভুইয়া দিপু, আনোয়ার সাদাত সায়েম, আমিরুল ইসলাম ইমন সহ নামীয় ৩৫ জন ও অজ্ঞাত ২২ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়।
 এদিকে, ৫ সেপ্টেম্বর, বিএনপি নেতা আব্বাস উদ্দিন, নুরুজ্জামান, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা এড.তৈমূর আলম খন্দকার, জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান মনির, উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মাহফুজুর রহমান হুমায়ন, বশির উদ্দিন বাচ্চু ও ওমর ফারুক, নাসির উদ্দিন ভুইয়া, শফিকুল ইসলাম চৌধুরীসহ নামীয় ৪৪ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়। এসময় বিএনপি নেতা আব্বাস উদ্দিন ও নুরুজ্জামানকে গ্রেফতার করা হয়।
এদিকে, মামলা দায়েরের পর থেকেই বিএনপির নেতাকর্মীরা পালিয়ে বেড়াচ্ছে। পুলিশ নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি তল্লাশি চালাচ্ছে। এতে করে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
এ বিষয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা এড. তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, মামলা হামলা দিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের দমাতে পারবেনা। বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে আমরা আন্দোলন করে যাবো।
অস্ত্রসহ সন্ত্রাসী গ্রেফতার
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার বরপা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অভিযান চালিয়ে এক সন্ত্রাসীকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১ এর সিপিএসসি’র সদস্যরা। এ সময় তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২টি বিদেশী পিস্তল, ম্যাগজিন ভর্তি দুই রাউন্ড গুলী ও ১টি চাপাতি। গ্রেফতারকৃত মোঃ রুবেল ভূঁইয়া (৩৩) রূপগঞ্জের তারাবো দক্ষিণ পাড়ার মৃত তমিজ উদ্দিন ভূঁইয়ার ছেলে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার রাত পৌঁনে ৮টায় সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীতে অবস্থিত র‌্যাব-১১ এর সিপিএসসি’র সিনিয়র এএসপি জসিমউদ্দীন চৌধুরীর পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানায়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি সুত্রে আরো জানা যায়, গ্রেফতারকৃত সন্ত্রাসী মোঃ রুবেল দীর্ঘদিন ধরে রূপগঞ্জ এলাকায় মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকা- পরিচালনা করে এলাকায় জনসাধারণ এর মধ্যে আতংঙ্ক সৃষ্টি করে আসছে। মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকা-ের সঙ্গে জড়িত থাকার কারণে দীর্ঘদিন ধরে অত্র ব্যাটালিয়নের একটি বিশেষ দল তার উপর গোয়েন্দা নজরদারী চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। তার বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় মাদক সহ বিভিন্ন অপরাধের অসংখ্য মামলা রয়েছে। অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় রুবেল ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে র‌্যাব জানায়।
 উচ্ছেদ অভিযান
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে রাজউকের পূর্বাচল উপশহরে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পূর্বাচল উপশহরের ১৩নং সেক্টরের ভোলানাথপুর এলাকায় এ উচ্ছেদ অভিযান চলাকালীন প্রায় শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।
অভিযান পরিচালনা করে রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জেসমিন আক্তার বলেন, গতকাল শুক্রবার ভ্রাম্যমান আদালত (মোবাইল কোর্ট) এর মাধ্যমে রাজউকের পূর্বাচল উপশহরের ১৩নং সেক্টরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এই উচ্ছেদ অভিযান একটি চলমান প্রক্রিয়া। পরবর্তী উচ্ছেদ অভিযান যেকোন সময় হতে পারে। এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাজউকের অথোরাইজ অফিসার আদিল উজ্জামান, সহকারী অথোরাইজ সুনিয়া শাহানাজ, সাইফুল ইসলাম সাইফ, রাজউক পুর্বাচল শাখার সিইইউ কাওসার আহম্মেদ, রাজউক ইন্সপেক্টর মিন্টু কুমার ম-লসহ ঢাকা পুলিশ লাইন ও রূপগঞ্জ থানা পুলিশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ