ঢাকা, শনিবার 8 September 2018, ২৪ ভাদ্র ১৪২৫, ২৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজাপুরে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধন ॥ প্রশাসন নীরব

রাজাপুর (ঝালকাঠি) : ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় দুর্বৃত্তরা বিষ প্রয়োগে মাছ নিধন করছে আর এ ব্যাপারে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ থাকলেও প্রশাসন নীরবতা পালন করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নদীতে বিষ প্রয়োগ করায় পানি দূষিত হয় ফলে চিংড়ি, পুটি, ব্যাদা, পাবদা, বায়লা, টেংড়া, শিং, কৈ, মাগুড়সহ বিভিন্ন দেশীয় প্রজাতির মাছের বংশ দিনে দিনে বিলিন হয়ে যাচ্ছে। সুত্র জানায়, দুর্বৃত্তরা গভীর রাতে উপজেলার ঘিগড়া, কেওতা, বামনকাঠি, পাড়গোপালপুর, আমিন বাড়ি খাল, ধানসিড়ি, পোনা, জাঙ্গালিয়া নদী ও পাড়ের খালে বিষ প্রয়োগ করে মাছ নিধন করে বিভিন্ন হাট- বাজারে মাছ বিক্রেতাদের মাধ্যমে মাছগুলো বিক্রি করে। মাছ বিক্রেতাদের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান, উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে ক্রয় করে এনে তারা বাজারে বিক্রি করছেন। এ ঘটনায় উপজেলার ঘিগড়া গ্রামের তালুকদার আঃ ছোবাহান এলাকাবাসীর পক্ষে ইউএনও অফিস, রাজাপুর থানাসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করে। তিনি অভিযোগে জানান, যারা মাছ ধরার জন্য খালে - জাল পাতেন বা মৎসজীবি তারাই এহন নেক্কার জনক ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে তার ধারনা। এ বিষয়ে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) রমনী কুমার মিস্ত্রী জানান, ঘটনাটি শুনে ঐ চক্রটিকে ধরার চেষ্টা করছি।
শিক্ষককে হত্যার হুমকি ॥ থানায় জিডি : ঝালকাঠির রাজাপুরে জমিজমার বিরোধের জের ধরে ডাঃ হেমায়েত উদ্দিন নামে এক মাদরাসা শিক্ষককে মারধরসহ হত্যার হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ডাঃ হেমায়েত উদ্দিন উপজেলার পশ্চিম চর বাঘড়ী গ্রামের মৃত আঃ মান্নান সিকদারের ছেলে ও ইসাহাকাবাদ হোসাইনা সিনিয়র মাদরাসার শিক্ষক। জানাগেছে, উপজেলার বাঘড়ী গ্রামের মৃত আইয়ুব আলী সিকদারের তিন ছেলে মোঃ আবুল কালাম হায়দার (৪০), মোঃ ইমদাদুল হক খোকন (৩৮) ও মোঃ শহিদুল ইসলাম সবুজ (৩০) এর সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। যা নিয়ে বিবাদীরা তার বিরুদ্ধে রাজাপুর সেটেলমেন্ট অফিসে মামলা দায়ের করে। গত ১৬ আগস্ট দুপুরে ডাঃ হেমায়েত উদ্দিনকে রাজাপুর সেটেলমেন্ট অফিসের সামনে একা পেয়ে বিবাধীরা তাকে বিরোধীয় ঐ জমি তাদেরকে নিদাবী লিখে দেয়ার জন্য তার উপর চাপ প্রয়োগ করে। ডাঃ হেমায়েত উদ্দিন রাজি না হলে বিবাদীরা তাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে সমস্ত শরীরে ফুলা জখম করে। তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে বিবাধীরা খুন জখম করিয়া জমি খাওয়ার সাধ মিটাইয়া দিবে বলে হুমকি প্রদর্শন করে স্থান ত্যাগ করে। বিবাদীদের হুমকিতে ডাঃ হেমায়েত উদ্দিনের পরিবারের মধ্যে এখন আতংক বিরাজ করছে। এ ঘটনায় ডাঃ হেমায়েত উদ্দিন ১৬ আগস্ট রাতে বিবাদীদের নাম উল্লেখ করে রাজাপুর থানায় সাধারন ডাইরি করেন। ডাইরি নং ৬১৭।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ