ঢাকা, রোববার 9 September 2018, ২৫ ভাদ্র ১৪২৫, ২৮ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাস্তা-ঘাট ও হাট-বাজারে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি

ফটিকছড়ি : খালের ভাঙনে সড়ক ধসে যাওয়ার দৃশ্য (বামে) খানা-খন্দকপূর্ণ একটি রাস্তা (ডানে) -সংগ্রাম

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, ফটকিছড়ি (চট্টগ্রাম): বরাবরই ফটিকছড়ি অবহেলিত। মহাজোট সরকারের ধারাবাহিক দু মেয়াদে অনুন্নয়নের চিত্রই বেশি দৃশ্যমান। রাস্তাঘাট, কালভার্ট, ব্রীজ, হাট বাজার, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও নদী ভাঙ্গনের সমস্যাসহ আরো ব্যপক সমস্যা ফটিকছড়িতে বিদ্যমান রয়েছে।
১৭টি চা বাগান,৩টি রাবার বাগান,প্রায় ৪০টি হাটবাজার,অসংখ্য বালি মহালসহ  প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর দেশের বৃহত্তম উপজেলা ফটিকড়ি থেকে কোটি কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হলেও জনগুরত্বপূর্ণ সমস্যাগুলোতে উন্নায়নের ছোঁয়া না লাগায় ফটিকছড়ির প্রতি অতিত সরকারগুলোর মত  মহাজোট সরকারের বৈষম্য ফুটে উঠেছে। তাই ফটিকছড়িবাসীও পাওয়া না পাওয়ার  মহাজোট সরকারের অতিবাহিত বছরের হিসাব নিকাশ কষতে শুরু করেছে। মহাজোট সরকারের ভিতর একাধিক রাজনৈতিক ও প্রভাবশালী নেতা গুরত্বপূর্ণ নেতৃত্বে থাকা সত্ত্বেও উল্লেখযোগ্য তেমন কোন উন্নায়ন না হওয়ায়   সাধারণ জনগণ তাদের ক্ষোভ ও হতাশা ব্যক্ত করছেন।
ফটিকছড়ি উপজেলা দেশের বহু অলোচিত একটি উপজেলা। এই উপজেলায় জন্নগ্রহণ করেন অসংখ্য পীর, অউলিয়া, জ্ঞানী, মনষী,কবিসহ অসংখ্যা কালজয়ী পুরুষ ও রাজনীতিবিদ। তা সত্ত্বেও বরাবরই উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত ফটিকছড়ি, অথচ দেশের বিভিন্ন উপজেলা বিভিন্ন সরকারের আমলে অভূতপূর্ব উন্নতি সাধন হয় শুধু ভাগ্যের পরিবর্তন হয়না ফটিকছড়িবাসীর। মানবিক দিক থেকে ফটিকছড়ির দিকে একটু নজর দিলে অসংখ্যা সম্যস্যা গুলো দেখে নিরবে চোখের পানি ফেলা ছাড়া কিছুই করার থাকেনা। আমাদের গোয়াল ঘরের গাভীর দুধ নিয়ে যায় উরা কিন্তু আমাদের খেয়াল করে না।
এদিকে ফটিকছড়ির বিভিন্ন গ্রামীন অঞ্চল পরিদর্শন ও এলাকার মানুষদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বিভিন্ন সরকারের আমলে ফটিকছড়ির উন্নয়নের ধারা একেবারে থমকে ছিল। ফলে এই উপজেলার নানাবিদ সম্যস্যাসহ গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো সংস্কারের অভাবে চরম আকার ধারণ করছে।
বিশেষ করে গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোর মধ্যে , গহিরাÑহেয়াকো সড়ক,নাজিরহাট -সুয়াবিল-কাজিরহাট সড়ক, মাইজভা-ার বিনাজুরী সড়ক,নানুপুর-খিরাম-বার্মাছড়ি সড়ক,গোফালঘাটা শহীদ সড়ক সুয়াবিল শোভনছড়ি সড়কসহ আরো অনেক প্রধান সড়ক ও অসংখ্য গ্রামীন সড়কের র্বতমান চরম অবস্থা। বিভিন্ন সড়ক,নদী, খাল, ছড়ার উপর নির্মিত বিভিন্ন কালভাট, ব্রীজ চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়লেও সেসব কালভার্টি ব্রীজের তেমন ক্নো উন্নয়ন হয়নি। বিশেষ করে ফটিকছড়ি প্রবেশ দ্ধারে হালদার উপর নির্মিত পুরাতন ব্রীজটি বর্তমান মারাত্মক ঝুকিপূর্ণ অবস্থায়। ফটিকছড়ির যে হাটবাজার গুলো থেকে বছরে লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব আদায় হয়, সে সব হাট বাজার গুলোরও তেমন কোন উন্নয়ন  পরিলক্ষিত হয়না। হালদা, ধূরূং, সর্তা, নদীসহ আরো অনেক নদী খালের ভাঙ্গনে প্রতি বছর শতশত ঘর বাড়ী বিলিন হলেও ভাঙ্গন  রোধে তেমন কোন ব্যবস্থা নেওয়া হইনি। এছাড়া নদী খালগুলোর উপর বিভিন্ন স্থানে ব্রীজ নির্মানের দাবী ও র্দীঘদিনের।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ