ঢাকা, রোববার 9 September 2018, ২৫ ভাদ্র ১৪২৫, ২৮ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজারহাটে বহিষ্কৃত প্রধান শিক্ষক উৎকোচ নিয়ে ২টি পদে নিয়োগ দিলেন

আমিনুল ইসলাম, রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা: রাজারহাটে বটতলা আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বহিকৃত প্রধান শিক্ষক গনি মিয়া ম্যানেজিং কমিটির স্বাক্ষর জাল করে ২টি পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করায় ম্যানেজিং কমিটি ও প্রধান শিক্ষকের মধ্যে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে।  বিষয়টি নিয়ে এলাকায় টান টান উত্তেজনা চলছে।
অভিযোগে জানা গেছে, ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আঃ গনি মিয়ার দীর্ঘদিনের নানা প্রকার দূর্নীতি-অনিয়ম ও জালিয়াতির কারণে তাকে গত ২০ফেব্রুয়ারী স্কুল পরিচালনা কমিটি সাময়িক বরখান্ত করে। কিন্তু সভাপতির সাথে যোগসাজস করে কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে রেজুলেশনে অন্যান্য কমিটির সদস্যদের স্বাক্ষর জাল করে প্রধান শিক্ষকের বরখাস্ত প্রত্যাহার করে নেয়। এর পর থেকে সে দূর্নীতিতে আরো মরিয়া হয়ে উঠে। সম্প্রতি প্রধান শিক্ষক আঃ গনি মিয়া এলাকায় প্রকাশিত নয় এমন একটি পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে তা গোপন রেখে পূর্বের নির্ধারিত ২ পদের ২ প্রাথীর  কাছ থেকে ৩০লাখ টাকার বিনিময়ে গত ২৭ আগষ্ট গোপনে অফিস সহকারী কাম ক্যাটালগার এবং লাইব্রেরীয়ান পদে জেলার নাগেশ্বরী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষা গ্রহন করে তাদেরকে নিয়োগ প্রদান করে বলে ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আঃ আউয়াল, আঃ মালেক, মোছাঃ রেজিনা খাতুন, আঃ মালেক বসুনিয়া, আমিনুল ইসলাম, মাহমুদা বেগম ও আঃ রহিম সরকার একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু ওই পদে অন্যান্য আবেদনকারী গণকে পরীক্ষার প্রবেশ পত্র দেয়া হয়নি। শুধু মাত্র যে দু’জনকে নেয়া হয়েছে তারাসহ তাদের মনোনিত প্রার্থীদের ওই পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করতে দেয়া হয়েছে বলে ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা সহ মোঃ তৌহিদ সরকার, মোঃ রাহেনুল হক, মোছাঃ সালমা বেগমসহ ৭জন প্রার্থী উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেছে।  এব্যাপারে প্রধান শিক্ষক আঃ গনি বলেন, আমি কোন অনিয়ম করি নাই। ভূল বুঝাবুঝির কারণে সভাপতি আমাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছিল। তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে।
এ ব্যাপারে ওই প্রিিতষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আঃ রহিম জানান, উক্ত প্রধান শিক্ষক দূর্নীতির কারণে দীর্ঘ ২ বছর ধরে প্রতিষ্ঠানে আসে না। তার দূর্নীতির বিষয়ে অভিযোগ উঠায় গত ২০ ফেব্রুয়ারী তাকে ম্যানেজিং কমিটি সাময়িকভাবে বহিষ্কার করে। ৪ সেপ্টেম্বর এ বিষয়ে রাজারহাট উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: আশরাফুজ্জামান বলেন, নিয়োগের অনিয়মের ব্যাপারে কোন অভিযোগ আসেনি। নিয়মতান্ত্রিক ভাবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। জাল স্বাক্ষরের বিষয়টি আমার বুঝার উপায় নেই। আমি রেজুলেশনে ম্যানেজিং কমিটির স্বাক্ষর দেখেছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ