ঢাকা, সোমবার 10 September 2018, ২৬ ভাদ্র ১৪২৫, ২৯ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অবৈধভাবে আল আকসা মসজিদে ঢুকে পড়েছে ইসরাইলী দখলদাররা

৯ সেপ্টেম্বর, আনাদুলো এজেন্সি, টাইমস অব ইসরাইল : মুসলমানদের অন্যতম পবিত্র ধর্মীয় স্থান পূর্ব জেরুসালেমের আল আকসা মসিজদে জোর করে কয়েকজন ইসরাইলী দখলদার ঢুকে পড়েছে। ফিলিস্তিনি এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে তুরস্কের বার্তা সংস্থা জানিয়েছে গতকাল রোববার দেড়শোরও বেশি ইসরাইলী মসজিদ চত্বরে ঢুকে পড়েছে।

রবিবারের ঘটনা সম্পর্কে মসজিদটির তত্ত্বাবধানকারী জর্ডানের পরিচালিত সংস্থা জেরুজালেম ইসলামিক ওয়াকফ এক সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে বলেছে, দেড়েশোরও বেশি ইসরাইলী ইহুদি দখলদার পবিত্র মসজিদ চত্বরের আল মুগারাবা প্রবেশদ্বার দিয়ে ঢুকে পড়ে। সংস্থার মুখপাত্র ফিরাজ আল দিবস ওই বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছেন। তিনি বলেন, এসব দখলদারদের সঙ্গে ইসরায়েলের পুলিশ বাহিনীর সদস্যরাও ছিলেন। এছাড়া ইসরায়েরের কৃষিমন্ত্রী উরি এরিয়েলও দখলদারদের সঙ্গে মসজিদ চত্বরে প্রবেশ করেছেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী স্বীকৃতি দেওয়ার পর থেকেই পূর্ব জেরুজালেমসহ ফিলিস্তিনি এলাকায় উত্তেজনা বেড়েছে।

আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণটি একইসঙ্গে মুসলিম ও ইহুদিদের জন্য পবিত্র স্থান বলে বিবেচিত হয়। মুসলিমরা একে আল হারাম আল শরিফ নামে ডেকে থাকেন। আর ইহুদিরা এ স্থানটিকে ডাকেন টেম্পল মাউন্ট নামে। ১৯৬৭ সালে যখন ইসরায়েল এই এলাকায় প্রবেশাধিকার পায় তখন শুধু মুসলিমরাই আল-আকসায় নামাজ পড়তে পারতো। দিনের একটি নির্দিষ্ট সময় প্রার্থনার সুযোগ পেত ইহুদিরা।

১৯৬৭ সালের আরব যুদ্ধের পর থেকে ইসরায়েল পূর্ব জেরুসালেম দখল করে রেখেছে। পূর্ব জেরুজালেমকে নিজেদের অবিভাজ্য রাজধানী বলে দাবি করে থাকে ইসরায়েল। অবশ্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় পূর্ব জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি। ১৯৬৭ সালের পর পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমে ১শরও বেশি বসতি স্থাপন করেছে ইসরায়েল। পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমে স্থাপিত প্রায় ১৪০টি বসতিতে ৬ লাখেরও ইসরাইলী বসবাস করে। আন্তর্জাতিক আইনের আওতায় এ বসতি স্থাপনকে অবৈধ বলে বিবেচনা করা হলেও ইসরায়েল তা মানতে চায় না।

দূতাবাস না সরাতে প্যারাগুয়েকে চাপ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ইসরাইলী দূতাবাস জেরুসালেম থেকে তেল আবিবে না সরাতে প্যারাগুয়ে সরকারকে চাপ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। দূতাবাস স্থানান্তরের সিদ্ধান্তটি পুনর্বিবেচনা করতে প্যারাগুয়ের প্রেসিডেন্ট মারিও আব্দো বেনিতেজকে আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্যারাগুয়ের ‘ঐতিহাসিক’ সম্পর্কের কথা মনে করিয়ে দিয়ে বেনিতেজকে রাজি করানোর চেষ্টা চলছে। হোয়াইট হাউসের বিবৃতিকে উদ্ধৃত করে টাইমস অব ইসরায়েলের করা এক প্রতিবেদন থেকে এ কথা জানা গেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ