ঢাকা, সোমবার 10 September 2018, ২৬ ভাদ্র ১৪২৫, ২৯ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অভিবাসনবিরোধী জোয়ারের মধ্যেই সুইডেনে ভোট

৯ সেপ্টেম্বর, রয়টার্স, বিবিসি : সুইডেনে সাধারণ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। এই নির্বাচনে অবিভাসনবিরোধী একটি জাতীয়তাবাদী দল বড় ধরনের সাফল্য পেতে যাচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অভিবাসনবিরোধী জাতীয়তাবাদী দল সুইডেন ডেমোক্র্যাটস (এসডি) এর উত্থানের মধ্যেই গতকাল রোববারের এ সাধারণ নির্বাচনে ভোট দিতে যাওয়ার কথা সুইডেনের নাগরিকদের।

পার্লামেন্টে প্রবেশের আট বছর পর এবারের ভোটে দলটি ২০ শতাংশ সমর্থন নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসতে পারে বলে জনমত জরিপগুলোতে ধারণা দেওয়া হয়েছে। ক্ষমতাসীন সোশাল ডেমোক্রেট কিংবা প্রধান বিরোধীদল মধ্য-ডানপন্থিদের কেউই এবারের নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনে সক্ষম হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে।

অভিবাসনবিরোধী দল এসডির উত্থানের ব্যাপারে দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্টিফান লোফেন সতর্ক অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন ।

দলটির বিরুদ্ধে উগ্রবাদীতার অভিযোগ এনেছেন তিনি। এসডিকে ভোট দেওয়া ‘বিপজ্জনক’ হবে বলেও মন্তব্য করেছেন এ সোশাল ডেমোক্রেট নেতা।

সুইডেনের এবারের নির্বাচনী প্রচার অভিবাসন প্রসঙ্গকে কেন্দ্র করেই আবির্ভূত হচ্ছে। ২০১৪ সালের নির্বাচনে এসডি এর আগের নির্বাচনে পাওয়া আসনের তুলনায় দ্বিগুণের বেশি আসনে জিতেছিল। এবারও তারা এখনকার ৪২ আসনের দ্বিগুণ আসন পেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 “অন্ধকারের শক্তি সুইডেনে সৈন্য সমাবেশ করছে। ঘৃণ্য বাহিনী এখন সুইডেনে সচল হচ্ছে এবং জনগণকে একে অপরের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিচ্ছে,” শনিবার শেষ নির্বাচনী সমাবেশে বলেন প্রধানমন্ত্রী লোফেন।

প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় এসডি নেতা জিমি একেসন বলেছেন, অনেক ক্ষেত্রেই সুইডেন যতটা চরমপন্থি, অভিবাসনের বেলায় ততটা নয়।

ক্ষমতায় গেলে কম অভিবাসী গ্রহণের যে পরিকল্পনার কথা তিনি জানিয়েছেন, ‘বাকি ইউরোপে তা স্বাভাবিক রাজনীতি হিসেবে বিবেচিত হবে’ বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

ইউরোপের বিভিন্ন দেশে বিকাশমান নব্য-নাৎসী ও অন্যান্য কট্টর ডানপন্থি দলের সঙ্গে দীর্ঘদিন ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ থাকা এসডি ২০১০ সালে প্রথম সুইডেনের পার্লামেন্টে আসন পায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ