ঢাকা, মঙ্গলবার 11 September 2018, ২৭ ভাদ্র ১৪২৫, ৩০ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বিদ্যুতের অতিরিক্ত লোডশেডিং-এ অতিষ্ঠ সিংড়াবাসী

সিংড়া (নাটোর) সংবাদদাতা : পল্লী বিদ্যুতের অব্যাহত ভেলকিবাজী ও মাত্রাতিরিক্ত লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ সিংড়া উপজেলাবাসী। বেশ কিছুদিন থেকে চলছে অতিরিক্ত লোডশেডিং। ফলে অনেক কষ্ট পোহাতে হচ্ছে মানুষজনকে। তেমনি অনার্স ১ম বর্ষের পরীক্ষার্থী, স্কুল-কলেজগামী ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপড়ায়ও ঘটছে বিঘ্ন।
জানা গেছে, প্রতিদিন ২৪ ঘন্টার মধ্যে গড়ে ৩/৪ ঘণ্টা লোডশেডিং পোহাতে হচ্ছে সিংড়া উপজেলাবাসীকে। বিশেষ করে রাতের বেলা বিদ্যুৎ বঞ্চিত থাকতে হয় সিংড়াবাসীকে।
গ্রাহকরা অভিযোগ করে বলেন, এলাকায় ২ ঘন্টা বিদ্যুৎ দিলে তার পরবর্তী ১ ঘন্টা আর নেই। আকাশে মেঘ দেখা দিলেই চলে যায় বিদ্যুৎ। লোডশেডিংয়ের কারণে ব্যবসা-বাণিজ্য ঠিক মত করতে পারছে না ব্যবসায়ীরা।
 পৌর শহরের মাদ্রাসা মোড় এলাকার সুজন রহমান নামের একজন কম্পিউটার দোকানদার বলেন, দিনের বেলা অতিরিক্ত লোডশেডিংয়ের কারণে দোকানে ঠিকমত কাজ করতে পারছি না, আবার রাতেও খুব বিরক্ত করছে।
হিজলী গ্রমের মোঃ রুবেল নামের একজন কলেজ ছাত্র বলেন, বিদ্যুতের ভেলকিবাজিতে আমরা ঠিকমত পড়াশোনা করতে পারছি না, আমরা দ্রুত এর সমাধান চাই। সোহাগ আলী নামের একজন অনার্স ১ম বর্ষের পরিক্ষার্থী বলেন, পরিক্ষা চলছে, লোডশেডিং এ ঠিকমত পড়তে পারছি না। রাতে ঠিকমত ঘুমও হচ্ছে না।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুজন ব্যবসায়ী বলেন, গত কয়েকদিন যাবৎ অতিরিক্ত লোডশেডিং হচ্ছে, যার কারণে গরমে আমরা ঠিকমত ব্যবসা করতে পারছি না, শীঘ্রই এর সমাধান হোক এটাই আমাদের চাওয়া।
নাটোর পল্লী বিদ্যুত সমিতি-১ এর সিংড়া জোনাল অফিসের এজিএম মিজানুর রহমান জানান, সিংড়া উপজেলায় বিদ্যুতের চাহিদা ১৬ মেগাওয়াট, এখন পাওয়া যাচ্ছে ১০ মেগাওয়াট। এটাই মূলত লোডশেডিংয়ের কারণ। সমাধান কবে পাওয়া যাবে এমন প্রশ্নের জবাবে কিছুই বলতে পারেননি তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ