ঢাকা, মঙ্গলবার 11 September 2018, ২৭ ভাদ্র ১৪২৫, ৩০ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সময় টিভি’র উদ্দেশ্যে প্রণোদিত প্রতিবেদন ও পুলিশ কর্মকর্তা কর্তৃক শিবিরকে জড়িয়ে মিথ্যা বক্তব্যের তীব্র নিন্দা

‘নির্বাচনের আগে ‘বড় নাশকতার পরিকল্পনা’ জামায়াত-শিবিরের’ উল্লেখ করে বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল সময় টিভি’র উদ্দেশ্যে প্রণোদিত প্রতিবেদন ও ছাত্রশিবিরকে জড়িয়ে চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন পুলিশ কর্মকর্তার মিথ্যাচার এবং ভিত্তিহীন বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।
গতকাল সোমবার দেয়া প্রতিবাদ বার্তায় ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত ও সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন, চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিকে অস্থিতিশীল করে অবৈধ সরকারকে ফায়দা হাসিলের সুযোগ করে দিতেই সময় টিভি ও পুলিশ কর্মকর্তারা যৌথ ভাবে জামায়াত-শিবিরের নামে গায়েবী অভিযোগ রটনা করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। প্রতিবেদনে সিএমপি’র সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন, কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহসিন যে দায়িত্বহীন বক্তব্য দিয়েছেন তাতে আমরা বিষ্মিত। পুলিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, পুলিশের মনোবল ভেঙ্গে দিতে হামলার পরিকল্পনা ও জঙ্গিদের মত এ্যাপস ব্যবহার করছে জামায়াত-শিবির। এগুলো নিকৃষ্ট মিথ্যাচার। কোন নাশকতার পরিকল্পনার সাথে ছাত্রশিবিরের কোন সম্পর্ক নেই বরং এসব পুরোনো গল্প দলবাজ পুলিশ কর্মকর্তাদের বিকৃত আবিষ্কার। অন্যদিকে এ্যাপস বিশ্ব ব্যাপী সকল শ্রেণী পেশার মানুষের ব্যবহৃত সাধারণ বিষয়। এখানে এ্যাপস নিয়ে ছাত্রশিবিরকে বিশেষায়িত করা হাস্যকর। গায়েবী তথ্যের উপর ভিত্তি করে সুকৌশলে প্রতিবেদক জামায়াত-শিবিরকে জড়িয়ে রাজনৈতিক বিদ্ধেষমূলক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে অবৈধ সরকারকে ফায়দা হাসিলের সুযোগ করে দেয়ার জন্যই সময় টিভি পরিকল্পিত ভাবে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এ প্রতিবেদনের সাথে বাস্তবতার কোন মিল নেই।
তারা বলেন, আগেও সময় টিভিসহ কিছু গণমাধ্যম ও পুলিশের প্রশ্নবিদ্ধ কর্মকান্ড দেশবাসীর মনে নানা প্রশ্ন এবং বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে। আর এই রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক প্রতিবেদন বিভ্রান্তিকে আরো প্রকট করবে। আমরা দৃঢ়ভাবে বলতে চাই, ছাত্রশিবির সাংবিধানিক ও নিয়মতান্ত্রিক পন্থায় কর্মসূচির মাধ্যমে ছাত্রদেরকে সাথে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। কোন প্রকার নাশকতার সাথে ছাত্রশিবিরের দূরতম কোন সম্পর্ক নাই।
নেতৃদ্বয় বলেন, কোন গোষ্ঠির ক্রীড়নক হয়ে দায়িত্ব ভুলে মিথ্যাচার করা পবিত্র দায়িত্বের প্রতি চরম প্রতারণা। জাতি পুলিশ ও সাংবাদিকতাকে দায়িত্বশীল ভূমিকায় দেখতে চায়। এমন দায়িত্বহীন ভূমিকা অব্যাহত রাখলে জনগণের অনাস্থা ছাড়া তারা আর কিছুই অর্জন করতে পারবে না। যা কোন ভাবেই কাঙ্খিত নয়।
নেতৃদ্বয় আইনশৃঙ্খলা ও সাংবাদিকতার মত পবিত্র দায়িত্বে নিয়োজিত থেকে মিথ্যাচার না করতে পুলিশ ও গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ