ঢাকা, মঙ্গলবার 11 September 2018, ২৭ ভাদ্র ১৪২৫, ৩০ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

গাজীপুরে পুলিশের বাধায় বিএনপির কর্মসূচি পণ্ড সর্টগানের গুলী ও লাঠিচার্জ ॥ আটক-৯

গাজীপুর সংবাদদাতা : গাজীপুরে পুলিশের বাধায় সোমবার বিএনপির মানববন্ধন কর্মসূচি পণ্ড হয়ে গেছে। এসময় পুলিশের সঙ্গে বিএনপি’র নেতা-কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। একপর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিচার্জ ও ফাঁকা গুলী ছুঁড়ে মানববন্ধনে অংশ নেয়াদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এসময় ঘটনাস্থল  থেকে বিএনপির প্রয়াত  নেতা আ স ম হান্নান শাহের ছেলে শাহ রিয়াজুল হান্নান ও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর হান্নান মিয়া হান্নুসহ নয়জনকে আটক করেছে পুলিশ।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সোমবার গাজীপুর জেলা শহরের রাজবাড়ি সড়কের দলীয় কার্যালয়ের সামনে দলের নেতা-কর্মীরা রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু করে। মানববন্ধনকালে গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি একেএম ফজলুল হক মিলনের সভাপতিত্বে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় পুলিশ তাদের বাঁধা দেয়। পুলিশের বাঁধাকে উপেক্ষা করে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করতে থাকে বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা। এসময় পুলিশ লাঠিচার্জ ও সর্টগানের ৩২ রাউন্ড ফাঁকা গুলী ছুঁড়ে মানববন্ধনে অংশ নেয়াদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।
এতে আতংকিত হয়ে পথচারী ও ব্যবসায়ীসহ আশেপাশের লোকজন দিগবিদিক ছোটাছুটি করতে থাকে। এঘটনার সময় জেলা মহিলা দলের প্রাক্তন সভানেত্রী আনোয়ারা বেগমসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে বিএনপির প্রয়াত নেতা সাবেক মন্ত্রী বিগেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) আ স ম হান্নান শাহের ছেলে শাহ রিয়াজুল হান্নান ও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর হান্নান মিয়া হান্নুসহ নয়জনকে আটক করে পুলিশ।
 জয়দেবপুর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, বেআইনীভাবে সড়কে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে সমাবেশ করায় যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। এসময় তাদের সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে তারা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ সর্টগানের ৩২ রাউন্ড ফাঁকা গুলী ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থল থেকে কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ