ঢাকা, মঙ্গলবার 11 September 2018, ২৭ ভাদ্র ১৪২৫, ৩০ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নির্বাচন নিয়ে নানা গুঞ্জন প্রস্তুতি রাখছে প্রার্থীরা

তালা (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা: সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) সংসদীয় আসনের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে নানা গুঞ্জন চলছে।
সাতক্ষীরা জেলার তালা ও কলারোয়া উপজেলার একটি পৌরসভা ও ২৪টি ইউনিয়ন নিয়ে সাতক্ষীরা-১ আসন বিস্তৃত। এ আসনে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ১৬ হাজার ৩৪৭। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৭ হাজার ৩৬৫ এবং মহিলা ভোটার ২ লাখ ৮ হাজার ৯৮২ জন।
স্বাধীনতার পর থেকে সংসদ নির্বাচনে এ আসনে একবার মুসলিমলীগ, একবার জামায়াতে ইসলামী, একবার, জাতীয় পার্টি (এরশাদ), বিএনপির প্রার্থী হাবিবুল ইসলাম হাবিব, দুইবার আওয়ামীলীগ, একবার ওয়ার্কার্স পার্টি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।
১৯৯১’র পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামায়াতের অ্যাড. শেখ আনছার আলী দাঁড়িপাল্লা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে, তারা হলেন- বর্তমান এমপি ওয়ার্কার্স পার্টির অ্যাড.মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রকাশনা সম্পাদক ও সাবেক এমপি হাবিবুল ইসলাম হাবিব, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক এমপি প্রকৌশলী শেখ মুজিবর রহমান, জাতীয় পার্টির সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ দীদার বখ্ত, তালা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ নুরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম, কলারোয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমেদ স্বপন, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স ম আলাউদ্দীনের কন্যা, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক লায়লা পারভিন সেজুতি, জামায়াতের অধ্যক্ষ  ইজ্জতউল্লাহ ও  জেলা আওয়ামী লীগের কৃষিবিষয়ক সম্পাদক সরদার মুজিব। এছাড়া সংসদ নির্বাচন আসন্ন হওয়ায় আরও কিছু নতুন মুখের দেখা মিলছে নির্বাচনী এলাকায়। তারা হলেন, জেলা আ’লীগের যুগ্ন সম্পাদক ফিরোজ কামাল শুভ্র, আ’লীগনেতা প্রভাষক মনিরুজ্জামান, এ্যাড. মোহাম্মদ হোসেন , জেলা কৃষকলীগের সভাপতি বিশ্বজিৎ সাধু, কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সরদার আমজাদ হোসেন জাসদের কেন্দ্রীয় নেতা ওবায়দুস সুলতান বাবলুও মাঠে রয়েছেন। তবে প্রার্থী হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে অ্যাড. মোহাম্মদ হোসেন হঠাৎ করেই ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে ফেলেছেন তালা-কলারোয়ার নির্বাচনী এলাকা। তিনি বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঠে কাজ শুরু করায় দলীয় কোন্দল মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা করেছেন তৃণমূলের অনেকেই। অন্যদিকে বিএনপি-জামায়াতের একক প্রার্থী থাকায় মাঠে তারা বিশেষ সুবিধা পেতে পারেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ