ঢাকা, বুধবার 12 September 2018, ২৮ ভাদ্র ১৪২৫, ১ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

অল্প পুঁজিতে অধিক লাভ উল্লাপাড়ায় খাঁচায় মাছ চাষ

উল্লাপাড়ার করতোয়া নদীতে খাঁচায় মাছ চাষ

রবিউল আলম, উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) থেকে: অল্প পুঁজিতে অধিক লাভ হওয়ায় সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় খাঁচায় মাছ চাষ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। বেকার যুবকসহ ব্যক্তি পর্যায়ে চাষাবাদ করে ইতিমধ্যে এ উপজেলার মৎস্য চাষীরা লাভের মুখ দেখছে। সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা ও সহায়তা পেলে নদ- নদী ও মুক্ত জলাশয়ে খাঁচায় মাছ চাষাবাদের মাধ্যমে বেকার যুবক যুবতী সহ সাধারণ মানুষের ভাগ্য বদলের অপার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।
খাঁচায় মাছ চাষ করে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার মৎস্য চাষীরা। ঝুঁকিবিহীন অল্প পুঁজিতে অধিক লাভ হওয়ায় এ উপজেলায় খাঁচায় মাছ চাষ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। দিন দিন এ উপজেলায় বৃদ্ধি পাচ্ছে এ পদ্ধিতে মাছের চাষাবাদ। অল্প দিনে এ চাষাবাদ করে উল্লাপাড়ার কয়েকজন মৎস্যচাষী ইতিমধ্যে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে। তাদের দেখা দেখি অন্যরাও এ পদ্ধতিতে মাছ চাষে ঝুঁকে পড়েছে। এ উপজেলায় খাঁচায় মাছ করে সাফলতা অর্জনকারীদের মধ্যে অন্যতম উল্লাপাড়া উপজেলার চরঘাটিনা গ্রামের মোফাজ্জল হোসেন সরকারের ছেলে ফজলুল হক।
সরেজমিন উপজেলার চরসাতবাড়িয়া গ্রামের মৎস্য চাষী শফিউল মোমেন ও জাহাঙ্গীর আলমের খাঁচায় মাছচাষ প্রকল্পে গিয়ে দেখা যায়, তারা চলমান করতোয়া নদীতে প্রায় ৩২টি খাঁচায় মনোসেক্স তেলাপিয়া মাছের চাষাবাদ করছে। প্রায় সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১৭ সালে তারা এ পদ্ধতিতে মাছ চাষ শুরু করে। মাছের দাম কম থাকায় তারা প্রথমে লাভের মুখ না দেখলেও এখন লাভবান হচ্ছে। এ খামারের মালিক জাহাঙ্গীর আলম জানালেন, উল্লাপাড়ায় মাছের উদ্বৃত্ত্ চাষাবাদ, রপ্তানি না হওয়া ও খামার থেকে সরাসরি মাছ কেনার কোন ক্রেতা না থাকায় বাধ্য হয়ে স্থানীয় আড়তে কম দামে মাছ বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছে। এতে তারা মাছ বিক্রি করে তেমন লাভবান হচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, বিদেশে মাছ রপ্তানী ও খাঁচায় মাছচাষীদের সরকারি পর্যায়ে পৃষ্ঠপোষকতা দেয়া হলে এ চাষাবাদের মাধ্যমে বিপুল পরিমান মানুষের ভাগ্য বদল সম্ভব।
উল্লাপাড়া উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ বায়েজিদ আলম জানান, উল্লাপাড়ায় এখন প্রায় ৩০ জন মৎস্যচাষী ২’শ খাঁচায় এ পদ্ধতিতে মাছ চাষাবাদ করছে। এখানকার চাষীদের এক একটি খাঁচায় ৮’শ থেকে ১ হাজার কেজি মাছ উৎপাদন হচ্ছে।
চলমান নদী ও জলাশয়ে কোন টাকা ছাড়াই, অল্প পুঁজিতে মাছ চাষীরা ভাল লাভবান হচ্ছেন। ইতিমধ্যে আমরা প্রায় ৩৮ জন খাঁচায় মাছচাষীকে প্রশিক্ষণ দিয়েছি। একজন চাষীকে ১০টি খাঁচা স্থাপন করে দেয়া হয়েছে।
আমার দপ্তর থেকে খাঁচায় মাছ চাষীদের সার্বিক সহায়তা ও দিকনির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ