ঢাকা, মঙ্গলবার 18 September 2018, ৩ আশ্বিন ১৪২৫, ৭ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বাহরাইনকে ১০ গোলে হারিয়ে দারুণ সূচনা বাংলাদেশের 

স্পোর্টস রিপোর্টার: এএফসি কাপ অনুর্ধ্ব -১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্বের খেলায় বাহরাইনকে হারিয়ে দারুন সূচনা করলো স্বাগতিক বাংলাদেশ। গতকাল সোমবার কমলাপুরস্থ বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে লাল-সবুজের দলটি ১০-০ গোলে গোলে জয় পেয়েছে। বাহরাইনের জালে রীতিমত গোলউৎসবে মেতে ওঠে মারিয়া মান্দা-আঁখি খাতুনরা। ম্যাচের শুরু থেকেই বাহরাইনের রক্ষণ ভেঙ্গে চুরমার করে দেয় বাংলাদেশের মেয়েরা। যার ফলে সহজ জয় এসেছে। বাহরাইনের মেয়েরা কোনো প্রতি আক্রমণই গড়তে পারেনি বাংলাদেশের রক্ষণে। ফলে, পুরোটা ম্যাচই বলতে গেলে দর্শক হয়ে থাকতে হয়েছে বাংলাদেশের গোলরক্ষককে। দুই বছর আগে ঢাকায় অনুষ্ঠিত এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবলের বাছাই পর্বে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে চূড়ান্ত পর্বে উঠেছিল বাংলাদেশ। লাল-সবুজ জার্সিধারী কিশোরীরা সেই শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার লড়াইয়ের মিশনটা শুরু করেছে বেশ ভালোভাবেই। অন্যদিকে দুই ম্যাচ মিলে বাহরাইনের মেয়েরা হজম করলো ১৮ গোল। 

বাংলাদেশের হয়ে ২টি করে গোল করেন আনুচিং মোগিনি, শামসুন্নাহার জুনিয়র এবং অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা, ১টি করে গোল করেন আনাই মোগিনি, সাজেদা, শামসুন্নাহার সিনিয়র এবং তহুরা।

শুরু থেকেই প্রাধান্য নিয়ে খেললেও ম্যাচের ১১ মিনিটে গোলের দেখা পায় স্বাগতিকরা। ডানপ্রান্ত দিয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে আনাই মোগিনির বাঁকানো শট চলে যায় বাহরাইনের জালে। ১৬ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে বাংলাদেশের কিশোরীরা। প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে মারিয়া মান্ডার চোখ ধাঁধানো শট জড়িয়ে যায় বাহরাইনের জালে। ১৯ মিনিটে ব্যবধান দাঁড়ায় ৩-০। বক্সের মধ্যে শামসুন্নাহার জুনিয়রের ছোট ক্রসে আনুচিং মোগিনি ডান পায়ের আলতো টোকায় বল বাহরাইনের জালে পাঠিয়ে দেন। ৩৫ মিনিটে আবার গোল। বাম দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা ঋতুপর্ণার ক্রস বাহরাইনের গোলকিপার ফেরালেও আনুচিংয়ের শট কেউ ঠেকাতে পারেনি। প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে আনাই মোগিনীর ডান প্রান্তের ক্রসে হেড করে পঞ্চম গোল করেন শামসুন্নাহার জুনিয়র। এরপর মারিয়ার জোরালো শট বারে লেগে ফিরে  এলে ৫-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয়ার্ধেও স্বাগতিকদের আক্রমণে ভাটা পড়েনি। ৫৫ মিনিটে আঁখি খাতুনের পাস ধরে বক্সে ঢুকে গোল করেন সাজেদা খাতুন। দুই মিনিট পর শামসুন্নাহার জুনিয়রের জোরালো শটে আবার গোল। ৫৮ মিনিটে পেনাল্টি পায় বাংলাদেশ। ব্যবধান হয়ে যায় ৮-০। এ সময় গোলদাতা শামসুন্নাহারকে বক্সের মধ্যে ফেলে দেয় বাহরাইনের দানা বাসেম। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজান। কিন্তু এর প্রতিবাদ করায় তাকে লাল কার্ড দেখান রেফারি। ১০ জনের দলে পরিণত হয় বাহরাইন। স্পট কিক থেকে গোল করেন শামসুন্নাহার সিনিয়র। ম্যাচের শেষ দু’টি গোল মারিয়া এবং তহুরা খাতুনের।

একই মাঠে অনুষ্ঠিত দিনের প্রথম ম্যাচে লেবানন ৬-৩ গোলে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে হারিয়েছে। জাহরা আসাফ হ্যাটট্রিকসহ চার গোল করে টানা দ্বিতীয় জয় এনে দিয়েছেন দলকে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ