ঢাকা, শুক্রবার 21 September 2018, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে দেশে কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না

স্টাফ রিপোর্টার: জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ তৈরিু করতে আর টালবাহানা করার কোনো সুযোগ নেই। বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে এদেশে আর কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। 

গতকল বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে আয়োজিত ‘সংকটের আবর্তে বাংলাদেশ ও আমাদের করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।

ঢাকা মহানগর জমিয়তের আহ্বায়ক মুফতি জাকির হোসাইন খানের সভাপতিত্বে ও মাওলানা ওয়ালী উল্লাহ আরমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। প্রধান আলোচকের বক্তব্য রাখেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সভাপতি সাবেক মন্ত্রী মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জমিয়তের নির্বাহি সভাপতি মাওলানা মনছুরুল হাসান রায়পুরী, সহ-সভাপতি মাওলানা গোলাম রহমান, জাতীয় পর্টির মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, জমিয়ত মাহাসচিব মুফতি শেখ মুজিবুর রহমান, মাওলানা গোলাম মহিউদ্দিন ইকরাম, মাওলনা আব্দুল মালিক চৌধুরী, মাওলানা ওয়ালী উল্লাহ আরমান, মাওলানা আব্দুল হক কাউসারী, মুফতি রেজাউল করীম, মুফতি তোফায়েল গাজালি, মুফতি মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মাওলানা আব্দুল হালীম বিন হারুন, মাওলানা আবু সাঈদ, নিজাম উদ্দিন আল আদনান প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নজরুল ইসলাম খান বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে যারা বুলেটের সাহায্যে আবার ক্ষমতায় আসার স্বপ্ন দেখছেন তাদের স্বপ্ন কোনদিনই পুরণ হবে না। এরকম নির্বাচন হতে দেয়া হবে না।

তিনি বলেন, হামলা-মামলা ও জেল-জুলুমের ভয় দেখিয়ে পুরো দেশকে একটি ত্রাসের রাজ্যে পরিণত করা হয়েছে। ২০ দলের নেতা-কর্মীদের নামে প্রতিদিন হাজার হাজার গায়েবি মামলা দেয়া হচ্ছে। আমরা মনে করে সরকারের পায়ের নীচে মাটি না থাকায় তারা এগুলো করছে। তারা বুঝতে পেরেছে দেশপ্রেমী জনগণ মাঠে নেমে এলে তাদের অস্তিত্ব থাকবে না। তাই এবার ইভিএম এর মত একটি প্রশ্নবিদ্ধ প্রক্রিয়ায় নির্বাচন দেয়ার নতুন ষড়যন্ত্র মেতেছে। যেকোনো মূল্যে দেশের জনগণ সরকারের এ ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবেই ইনশাআল্লাহ।    

নেতারা অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার দাবি জানিয়ে বলেন, সরকার এটাও জানে দেশনেত্রী কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে বাইরে আসলে তারা আর এক মূহূর্তও ক্ষমতায় থাকতে পারবেন না। তাই ষড়যন্ত্রমূলকভাবে তাকে কারাগারে আটক রাখা হয়েছে। 

মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস সরকারের অনুগত নিবার্চন কমিশনের সমালোচনা করে বলেন, নির্বাচন কমিশন পুর্ণগঠন পূর্বক, সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে অবাধ, সুষ্ঠ নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করতে আর টালবাহানা করার কোনো সুযোগ নেই। জন স্রোতের বিরুদ্ধে গিয়ে কিছু করতে চাইলে তা সরকারের জন্য বুমেরাং হবে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ