ঢাকা, সোমবার 24 September 2018, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ১৩ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোট গ্রহণ

২৩ সেপ্টেম্বর, বিবিসি, রয়টার্স : ভারত মহাসাগরীয় দ্বীপদেশ মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে দেশটির সবগুলো কেন্দ্রে একযোগে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। এ দ্বীপপুঞ্জ স্বচ্ছ পানি ও নজরকাড়া অবকাশ কেন্দ্রের জন্য পরিচিত হলেও সম্প্রতি বিরোধী মত দমনে দেশটির সরকারের নানা পদক্ষেপ নিয়ে সমালোচনা চলছে। ভোটের আগের রাতে মালদ্বীপের পুলিশ বিরোধী দলগুলোর সদরদপ্তরগুলোতে হানা দিয়েছিলে বলেও জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন দক্ষিণ এশীয় এ দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে। গণতান্ত্রিক পরিস্থিতির উন্নয়ন না ঘটলে মালদ্বীপের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ারও হুমকি দিয়ে রেখেছে তারা। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটির নির্বাচনের দিকে কড়া নজর রাখছে এশিয়ার দুই প্রভাবশালী দেশ ভারত ও চীন।

প্রতিদ্বন্দ্বী দুই প্রার্থীর মধ্যে বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদুল্লা ইয়ামিনের সঙ্গে বেইজিংয়ের ঘনিষ্ঠতা রয়েছে। বিরোধী প্রার্থী ইব্রাহিম মোহামেদ সোলিহ’র ঝোঁক ভারত ও পশ্চিমা শক্তিগুলোর দিকে। রোববারের ভোটের পর গণনায় ‘বড় ধরনের জালিয়াতি’ হতে পারে বলে আশঙ্কার কথা জানিয়েছে বিরোধী জোট। ভোটারদের প্রত্যেকের ব্যালট পেপার যাচাইয়ে পর্যবেক্ষকদের সুযোগ না দেওয়ায় নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে ইয়ামিনের হয়ে কাজ করার অভিযোগও এনেছে তারা। মানবাধিকার সংগঠনগুলোও ইয়ামিন সরকারের বিভিন্ন কর্মকা-ের সমালোচনা করছে।

“সমালোচকদের আটক করে, গণমাধ্যমের মুখ বন্ধ রেখে ও বিরোধী প্রার্থীদের বাধা দিতে নির্বাচন কমিশনের অপব্যবহারের মাধ্যমে মালদ্বীপের কর্তৃপক্ষ ভোটের দিন প্রেসিডেন্ট ইয়ামিনের জয় নিশ্চিত করতে চায়,” বলেছেন মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এশিয়া বিষয়ক সহযোগী পরিচালক প্যাট্রিসিয়া গসম্যান।

শনিবার মালদ্বীপের পুলিশ কোনো ধরনের পরোয়ানা ছাড়াই বিরোধীদল মালদিভিয়ান ডেমোক্রেটিক পার্টির মালের সদরদপ্তরে অভিযান চালায় বলে দলটি অভিযোগ করেছে। বিস্তারিত তথ্য না জানালেও ওই অভিযানের কথা স্বীকার করেছেন পুলিশের এক মুখপাত্রও।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ