ঢাকা, মঙ্গলবার 11 December 2018, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৩ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

সরকার অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চায়: ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে শেখ হাসিনা

ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট সোমবার জাতিসংঘ সদরদপ্তরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাত করেন। ছবি: পিআইডি

 

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্থানীয় সময় সোমবার বলেছেন, তার সরকার সব রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে আগামী সাধারণ নির্বাচন আয়োজন চায়।খবর ইউএনবির।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদরদপ্তরের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক কক্ষে যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ বিষয়কমন্ত্রী জেরেমি হান্ট তার সাথে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ কথা বলেন। 

বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

জেরেমি হান্ট বলেন, বাংলাদেশে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখার অপেক্ষায় রয়েছে যুক্তরাজ্য।

জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরাও চাই সবাই (রাজনৈতিক দল) আগামী নির্বাচনে অংশ নিক। এটি অবাধ ও সুষ্ঠু হবে। এ জন্য আমাদের সরকার প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে।’

রোহিঙ্গা ইস্যুতে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে উদ্বাস্তু রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে জানতে চান।

জবাবে তিনি বলেন, এবিষয়ে বাংলাদেশ মিয়ানমারের সাথে চুক্তি সই করেছে। ‘মিয়ানমার তাদের নাগরিকদের বাংলাদেশ থেকে ফিরিয়ে নিতে সম্মত হয়েছিল, কিন্তু তারা সে অনুযায়ী কাজ করছে না।’

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, রোহিঙ্গাদের মাতৃভূমিতে যদি আমরা সহায়ক পরিবেশ তৈরি করতে এবং তাদের নিরাপদ ও সম্মানের সাথে প্রত্যাবাসনের আশ্বাস দিতে পারি তাহলে তারা ফিরে যাবেন। কিন্তু তেমন কিছু হচ্ছে না।

সে কারণে রোহিঙ্গাদের ভাসানচর দ্বীপে স্থানান্তরের জন্য যুক্তরাজ্যসহ সবার সহায়তা চেয়েছেন শেখ হাসিনা।

জেরেমি হান্ট শিগগিরই বাংলাদেশ সফরের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী এবং প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব মো. নজিবুর রহমান এসময় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী মাদক সমস্যা নিয়ে একটি উচ্চস্তরের বৈঠকে অংশ নেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পসহ বিশ্বনেতারা এতে উপস্থিত ছিলেন বলে পররাষ্ট্র সচিব জানিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ