ঢাকা, শুক্রবার 5 October 2018, ২০ আশ্বিন ১৪২৫, ২৪ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বাংলাদেশ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওরিয়েনটেশন অনুষ্ঠিত

 

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ ইসলামী  বিশ্ববিদ্যালয়-এর সামার ও ফল সেমিস্টার ২০১৮ এর ওরিয়েন্টেশন রাজধানীর গ্রীণ মডেল টাউন মা-ায় এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হয়েছে গতকাল বৃহস্পতিবার। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক কামালুদ্দীন আব্দুল্লাহ জাফরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বস্ত্র ও পাঠ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান সাবের হোসেন চৌধুরী । অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ভারপ্রাপ্ত ভিসি ও কলা সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন, অধ্যাপক শের মোহাম্মদ, বোর্ড অব ট্রাস্টির ভাইস-চেয়ারম্যান ও ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. এ.এন.এম. রফিকুর রহমান, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের মেম্বার সেক্রেটারী ও ডিরেক্টর প্লানিং এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট সাইয়েদ শহিদুল বারী, রেজিস্ট্রার প্রফেসর মোঃ ইউসুফ, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডীন ও বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোহাম্মাদ আরশেদ আলী মাতুব্বর, আইন অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. এ.বি.এম. মাহবুবুল ইসলাম এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগন। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, ১৭ থেকে ২৩ বছর বয়সের শিক্ষার্থীর মধ্যে শতকরা মাত্র ৪ জন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ পাচ্ছে। তাই ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের দেশের জন্য জনসম্পদে পরিণত হওয়ার আহ্বান জানান। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যেশ্যে বলেন, তোমরা নবিন তোমরা মুলত বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ তোমাদের হাত দিয়েই এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। তিনি বলেন, আধুনিক শিক্ষার সঙ্গে দরকার প্রযুক্তি এবং নৈতিকতা শিক্ষা যা বাংলাদেশ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় করে থাকে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে শিক্ষার মান সংরক্ষণে কঠোর থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, দেশের ১০৩ টি বেরসরকারী বিশ্ব বিদ্যালয়ের মধ্যে যে ১৬ বিশ্ববিদ্যালয় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নিজস্ব ক্যাম্পাসে যেতে পেরেছে তার মধ্যে বাংলাদেশ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় একটি। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বাণিজ্যিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে চলে না। এখানকার আয় দিয়ে প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো এবং মেধাবী শিক্ষার্থীদের কল্যানে ব্যয় করে থাকে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশের প্রশংসা করেন এবং শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ মঙ্গল কামনা করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যপক কামাল উদ্দিন আবদুল্লাহ জাফরী বলেন, নবীনরা জ্ঞান অর্জনের পাশাপাশি নিজেকে তৈরি করবে। নইলে ধ্বংসের দিকে যায়। উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, জ্ঞানের মাধ্যমেই ফরমালিন তৈরি হয়। কিন্তু তা ব্যবহার করা হয় মানবজাতির ধ্বংসের জন্য। এজন্য জ্ঞানকে সঠিক কাজে ব্যবহারের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন জ্ঞানের সাথে সাথে নৈতিকতা অর্জনও জরুরী। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে সাম্প্রদায়িকতা শিক্ষা দেওয়া হয় না এখানে বিভিন্ন ধর্মালম্বিরাও শিক্ষা গ্রহণ করছে।  প্রধান অতিথির বক্তব্যের আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক কামালুদ্দীন আব্দুল্লাহ জাফরী অতিথিকে ক্রেস্ট দিয়ে বরণ করেন ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ