ঢাকা, রোববার 7 October 2018, ২২ আশ্বিন ১৪২৫, ২৬ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

অনুরাগ-বিরাগে সুশাসন হয় না

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় কর্তব্যরত সাংবাদিকদের ওপর প্রকাশ্যে যে নির্মম হামলা চালানো হয়েছিল তা ভোলার নয়। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো, হামলাকারীদের স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় আইনের আওতায় আনা হয়নি। ৪ অক্টোবর তারিখে একটি জাতীয় দৈনিকে মুদ্রিত প্রতিবেদনে বলা হয়, সাংবাদিকদের চাপের মুখে প্রতিকারের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছিলেন তথ্যমন্ত্রী। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশকে। ঘটনার পর দুই মাস গত হতে চললো কিন্তু কোন ব্যবস্থাই নেয়া হয়নি। উল্লেখ্য যে, নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় গত ৫ আগস্ট রাজধানীর সায়েন্স ল্যাবরেটরি এলাকায় হামলা করেন ঢাকা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। ওই হামলায় ১২ জন কর্তব্যরত সাংবাদিকসহ অন্তত ৩০ জন আহত হন। এই হামলার ভিডিও এবং স্থিরচিত্র গণমাধ্যমে প্রচারিত হয়েছে। ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। কিন্তু মাথায় হেলমেট পরা লাঠিধারী হামলাকারীরা এখনও গ্রেফতার হয়নি।
প্রসঙ্গত এখানে উল্লেখ করা যায় যে, হামলাকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের হস্তক্ষেপ চেয়ে গত ৭ আগস্ট চিঠি দিয়েছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। ওই চিঠির পর কী হলো, জানতে চেয়ে চলতি সপ্তাহে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাজনৈতিক ও পুলিশ শাখায় যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু এই দুই শাখার কর্মকর্তারা এ ধরনের কোন চিঠি হাতে পাননি বলে প্রথম আলোকে জানান। আর তথ্যমন্ত্রীর চিঠির পর পুলিশের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘তথ্যমন্ত্রী চিঠি দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে। তাই এ ব্যাপারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভালো বলতে পারবেন, আমার জানা নেই।’ এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমি তো হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা করার নির্দেশ দিয়েছিলাম। কেন পুলিশ এখনও মামলা করেনি তা পুলিশ কমিশনারের কাছে জানতে হবে। তবে আমি আবারও আশ্বস্ত করতে চাই, হামলাকারীদের চিহ্নিত করে আমরা ব্যবস্থা নেব, সাংবাদিক নেতাদের কাছে দেয়া কথা আমরা রাখবো।’ আর চিঠি দিয়েই দায়িত্ব শেষ করেছেন কিনা, জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘আমাদের তো আশ্বস্ত করা হয়েছিল তারা ব্যবস্থা নেবে, কিন্তু নিলো না। সাংবাদিকদের ওপর এভাবে হামলা করার পরও যদি বিচার না হয় তবে সাধারণ মানুষের কী হবে?’ তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবারও যোগাযোগ করবেন বলে জানান।
সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় পুলিশ কমিশনার, তথ্যমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য ভেবে দেখার মতো। তাদের বক্তব্য আমাদের আশাবাদী করে না বরং এই উপলব্ধি দেয় যে, আইন তার নিজের গতিতে চলছে না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলার পরও আইন তার নিজস্ব গতিতে চলতে পারছে না কেন? রহস্য কোথায়? বিরোধী দলের লোকদের বিরুদ্ধে মামলা ও গ্রেফতারের ক্ষেত্রে তো পুলিশ বেশ তৎপর ও চৌকস মনে হয়। কিন্তু সরকারি দলের লোকদের বিরুদ্ধে মামলা ও গ্রেফতারের ক্ষেত্রে পুলিশ এতো অসহায় ও দুর্বল হয়ে পড়ে কেন? সরকারের আচরণে যদি অনুরাগ ও বিরাগের বিষয়টি প্রবল হয়ে ওঠে তাহলে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হবে কেমন করে? আর সাংবাদিকদের সাথে যে আচরণ করা হলো তাতে তো সন্ত্রাস প্রশ্রয় পাবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ