ঢাকা, সোমবার 15 October 2018, ৩০ আশ্বিন ১৪২৫, ৪ সফর ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

শিরোপা জয়ের লক্ষ্য নিয়েই দল গড়েছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব

স্পোর্টস রিপোর্টার : নবাগত বসুন্ধরা কিংসের পর ফুটবলার দলবদল জমিয়ে তুললো সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। আগের বিকেলে প্রিমিয়ার লিগের নবাগত ক্লাব বসুন্ধরা কিংস দলবদল করতে এসে তৈরি করেছিল উৎসবমূখর পরিবেশ।একইভাবে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবও ফুটবলার, কর্মকর্তা ও সমর্থকদের নিয়ে এসেছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে)। দুপুর ১২টার পরপরই সরগরম হয়ে উঠলো আরামবাগস্থ বাফুফে ভবন। হলুদ টি-শার্ট পরে শ’তিনেক সমর্থক ‘সাইফ.. সাইফ...’ বলে মাতিয়ে তুললো বাফুফে ভবনের আঙ্গিনা ও সামনের মাঠ। প্রায় সবার হাতেই ভূভূজেলা। সঙ্গে বাদ্যবাদক দল। ঢাক আর ভূভূজেলার আওয়াজ মিলে তৈরি হলো অন্যরকম এক পরিবেশ। পুরো আনন্দ-উৎসবের কেন্দ্রে জামাল ভুঁইয়া। তিনি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের দল সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডের অধিনায়ক।ক্লাবটির সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমানের নেতৃত্বে সমর্থকরা বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে জড়ো হয়েছিলেন। সেখান থেকে জামাল ভূঁইয়াকে সামনে রেখে মিছিল করতে করতে হাজির হয় বাফুফে ভবনে। খেলোয়াড়দের মধ্যে কেবল অধিনায়কই ছিলেন রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রমে।

গত মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগে প্রথম নাম লিখিয়ে সব শিরোপা জয়ের ঘোষণা দিয়েছিল সাইফ পাওয়ারটেক প্রতিষ্ঠিত এ ক্লাবটি। যদিও প্রথম আসর তাদের জন্য সুখকর হয়নি। ফেডারেশন কাপ ও স্বাধনীতা কাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছিল এবং লিগে হয়েছিল চতুর্থ। তবে প্রথম মৌসুমে তাদের বড় প্রাপ্তি ছিল এএফসি কাপে খেলা। গতবারের ব্যর্থতা ঘুচিয়ে এবার ঘরোয়া ফুটবলে ভালো করার প্রত্যয় নিয়ে দল গড়েছে ক্লাবটি। গতকাল নতুন মৌসুমের জন্য ৩২ ফুটবলারকে নিবন্ধন করিয়েছে সাইফ স্পোর্টিং।স্থানীয় ফুটবলারদের মধ্যে নিঃসন্দেহে বড় মুখ জাতীয় দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। ক্লাবের অধিনায়কের দায়িত্বও থাকছে এ ডেনমার্ক প্রবাসী মিডফিল্ডারের কাঁধে। রেজিস্ট্রেশন করতে এসে জামাল ভূঁইয়া বলেছেন, ‘আমাদের দলটি তারুণ্য নির্ভর। বেশি সিনিয়র খেলোয়াড় নেই। সবাই খেলার জন্য মুখিয়ে আছেন। তারা সব টুর্নামেন্ট চ্যাম্পিয়ন হতে চায়। এবার বেশ কয়টি ক্লাব ভালো দল গড়েছে। এবার আমরা চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইট করবো ইনশাআল্লাহ।’দলের মিডফিল্ড আর ডিফেন্সকে শক্তিশালী উল্লেখ করে সাইফ এসসির অধিনায়ক বলেন, ‘আমি, শাহেদ, আল আমিনসহ বেশ কয়েকজন মিডফিল্ডার রয়েছে দলে। ডিফেন্সে আছে রহমত মিয়াসহ ভালো কয়েকজন তরুণ। আমি আশা করি, তারা নিজেদের প্রমাণের চেষ্টা করবে।’

আসাম ও কলকাতায় প্রাক মৌসুম প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে সাইফ স্পোর্টিং। এটাকে অধিনায়ক বলছেন বোনাস হিসেবে। যা কাজে দেবে তাদের ঘরোয়া ফুটবলে। এখন তারা ফেডারেশন কাপে চোখ রেখে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। গত বছরের দলের সঙ্গে এবারের দলের তুলনা করতে গিয়ে জামাল ভূঁইয়া বলেন, ‘সব সময়ই প্রথম মৌসুম কঠিন থাকে। এখন আমাদের দল অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে। যে ভুলগুলো হয়েছে তা সংশোধন করেছি। আমরা সেরাটা খেলার চেষ্টা করবো।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ