ঢাকা, সোমবার 15 October 2018, ৩০ আশ্বিন ১৪২৫, ৪ সফর ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

তুরস্কে অভিবাসন প্রত্যাশীদের বহনকারী ট্রাক খালে ॥ নিহত ১৯

ছাদখোলা ওই ট্রাকটির ধ্বংসাবশেষ খালের চারপাশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে              -রয়টার্স

১৪ অক্টোবর, রয়টার্স, আনাদোলু, সিএনএন : তুরস্কের পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ ইজমিরে অভিবাসন প্রত্যাশীদের বহনকারী একটি ট্রাক খালে পড়ে শিশুসহ ১৯ জন নিহত হয়েছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা আনাদোলুর বরাতে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

গতকাল রোববার দেশটির এক মহাসড়কের পাশে থাকা একটি দেয়ালে আঘাত করার পর ট্রাকটি ২০ মিটার নিচের খালে পড়ে যায় বলে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে।

স্থানীয় সময় সকাল ৮টার দিকে ইজমিরের দক্ষিণে বিমানবন্দরের কাছে গাজিমির জেলার মহাসড়কে ট্রাকটির চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে বলে জানিয়েছে বেসরকারি সংবাদ সংস্থা দেমিরোরেন (ডিএইচএ) ।

ট্রাকটিতে থাকা অভিবাসনপ্রত্যাশীরা তাদেরকে ইজমিরের দক্ষিণ উপকূল থেকে গ্রিসের সামোস দ্বীপে নৌকা করে পৌঁছে দিতে মানবপাচারকারীদের সঙ্গে চুক্তি করেছিল বলে জানিয়েছে ডিএইচএ।

আনাদোলুতে প্রকাশিত ভিডিও ও ছবিতে দেখা গেছে, ছাদ খোলা ওই ট্রাকটির ধ্বংসাবশেষ খালের চারপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে।

জরুরি উদ্ধার কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ ও আহতদের উদ্ধার করে।

আহতের সংখ্যা ১১ এবং তাদেরকে অ্যাম্বুলেন্সে করে কাছের হাসপাতালগুলোতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। দুর্ঘটনায় চালকসহ ৫জন গুরুতর আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে ডিএইচএ।

হতাহত এসব অভিবাসনপ্রত্যাশী কোন দেশের নাগরিক তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সংঘাত ও দারিদ্রতার কারণে মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকা থেকে পালিয়ে আসা ১০ লাখেরও বেশি অভিবাসনপ্রত্যাশী সমুদ্রপথে ইউরোপে পৌঁছতে তুরস্ককে অন্যতম রুট হিসেবে ব্যবহার করেছে।

তুরস্কের সমুদ্রতীর থেকে অবৈধভাবে কয়েক মাইল দূরের গ্রিক দ্বীপে পৌঁছানোর চেষ্টা করতে গিয়ে কয়েক হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যু হয়েছে। এসব প্রাণহানির পর ইউরোপমুখি অভিবাসন প্রত্যাশীদের ঢল ঠেকাতে ২০১৬ সালে আঙ্কারা ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) মধ্যে চুক্তি হয়। এরপর থেকে এই রুটে অভিবাসপ্রত্যাশীদের ভিড় কমে আসে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ