ঢাকা, সোমবার 15 October 2018, ৩০ আশ্বিন ১৪২৫, ৪ সফর ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

আদালতের নির্দেশে কবর থেকে লাশ উত্তোলন

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য এমরান মোল্লার লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে।
সোমবার দুপুরে উপজেলার হারিন্দা কবরস্থান থেকে সহকারী কমিশনার ভুমি আসাদুজ্জামান মিয়ার নেতৃত্বে এমরান মোল্লার লাশ উত্তোলন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, এমরান হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জেলা পিবিআই এর পুলিশ পরিদর্শক গোলাম মোক্তার আশরাফ উদ্দিন, এমরানের ভাই মোস্তফা মিয়া, বোন জামাই আওয়াল গাজী। নিহত এমরান মোল্লা উপজেলার হারিন্দা এলাকার মৃত আব্দুল মবিন মোল্লার ছেলে। এমরান মোল্লা স্থানীয় আব্দুল হক ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের একাদশ শ্রেণীতে পড়ুয়া শিক্ষার্থী।
এমরানের ভাই মোস্তফা মিয়া জানান, গত ১৪ ফেব্রয়ারী হারিন্দা এলাকার কোট বাড়ির গোপ এলাকার শীতলক্ষ্যা নদীর মাছের ঘেরের ঝোপ থেকে একটি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই লাশটি এমরান মোল্লার লাশ বলে দাবি করেন তারা। এ ঘটনায় ঘটনায় নিহত এমরান মোল্লার বড় ভাই মোস্তফা মোল্লা বাদী হয়ে ৭ জনকে নামীয় ও অজ্ঞাত ২ থেকে ৩ জনকে আসামী করে রূপগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। পরে মামলাটি জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়। জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পক্ষ থেকে ডিএনএ পরীক্ষায় জানা যায় লাশটি একজন মহিলার। মামলার বাদী মোস্তফা মিয়া বিজ্ঞ আদালতের কাছে পুনরায় এমরান লাশ কবর থেকে উঠিয়ে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য আবেদন জানান। পরে মোস্তফা মিয়ার আবেদনের ভিত্তিতে বিজ্ঞ আদালত এমরানের লাশ কবর থেকে পুনরায় উঠিয়ে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য মামলাটি পিবিআই এর কাছে হস্তান্তর করা হয়।
পিবিআই এর পুলিশ পরিদর্শক গোলাম মুক্তার আশরাফ উদ্দিন, বিজ্ঞ আদালতের  নির্দেশে হারিন্দা কবরস্থান থেকে পুনরায় ডিএনএ পরীক্ষার জন্য এমরানের লাশ উত্তোলন করা হয়। লাশটি পুনরায় ডিএনএ পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ