ঢাকা, বুধবার 24 October 2018, ৯ কার্তিক ১৪২৫, ১৩ সফর ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

খাসোগিকে হত্যার পরিকল্পনা হয়েছিল আগেই------এরদোগান

২৩ অক্টোবর, রয়টার্স :  সৌদী সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যার পরিকল্পনা কয়েকদিন আগেই করা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোগান। গতকাল মঙ্গলবার পার্লামেন্টে ক্ষমতাসীন দলের এমপি’দেরকে তিনি একথা বলেন। ইস্তাম্বুলের সৌদী কনস্যুলেটে ২ অক্টোবরে খাসোগিকে যে পূর্বপরিকল্পিত এবং নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে তার শক্ত প্রমাণ আছে বলে মন্তব্য করেছেন এরদোগান।

এর জন্য দায়ীদের ইস্তাম্বুলেই বিচার করার দাবি জানান তিনি। এরদোগান বলেন, সৌদী চরদের একটি দল খাসোগি আসার আগের দিনই তুরস্কে এসেছিল এবং কনস্যুলেটের ক্যামেরাও সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল।

তিনি জানান, হত্যার ঘটনার দিন ১৫ সৌদী কনস্যুলেটে ঢুকেছিল। এর আগে কয়েকদিন এবং কয়েক ঘণ্টায় তারা ভিন্ন ভিন্ন ফ্লাইটে ইস্তাম্বুলে পৌঁছায়। আর এ দলটির তিন সদস্য ইস্তাম্বুলের সৌদী কনস্যুলেটের কাছে বেলগ্রাদ এবং ইয়ালোভা বনেও অন্বেষণে গিয়েছিল। যে জায়গায় তুরস্কের পুলিশ গত সপ্তাহে লাশ তালাশ করেছে।

এরদোয়ান আরো জানান, খাশুগজি সেজে দলটির যে সদস্য বাইরে বেরিয়েছিলেন তাকে ঘটনার দিনেই একটি ফ্লাইটে করে ইস্তাম্বুল ছেড়ে যেতে দেখা গেছে। সোমবার সিএনএন এ ব্যক্তিরই কনস্যুলেট থেকে বেরোনোর ক্যামেরা ফুটেজ প্রকাশ করে।

খাশুগজির ঘটনায় সৌদি আরবে ১৮ জন গ্রেপ্তার হয়েছে বলে এরদোয়ান নিশ্চিত করে জানিয়েছেন।  তিনি এ ১৮ জনকে ইস্তাম্বুলে বিচার করার দাবি জানিয়ে বলেন, এ ঘটনায় যাদের ভূমিকা আছে তাদেরকে সাজা দেওয়া হবে।

তবে হত্যার ঘটনায় পাওয়া কোনো প্রমাণ সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু প্রকাশ করেননি তিনি। খাশুগজির দেহ কোথায় আছে এবং কে এ অভিযানের নিন্দেশ দিয়েছে এর ব্যাখ্যা দেওয়ার জন্য সৌদি আরবের কাছে দাবি জানিয়েছেন এরদোয়ান।

তুরস্কের গণমাধ্যম এর আগে সাংবাদিক খাশুগজি নিখোঁজ হওয়ার পর অডিও এবং ভিডিও রেকর্ডিং থাকার যে খবর দিয়েছিল সে ব্যাপারে এরদোয়ান কোনো কিছু উল্লেখ করেননি।

খাশুগজি হত্যার ঘটনা খতিয়ে দেখার জন্য এরদোয়ান একটি স্বাধীন তদন্ত কমিশন গঠনের আহ্বান জানিয়েছেন এবং সৌদি বাদশাহ সালমান এতে পূর্ণ সহযোগিতা করবেন বলে আস্থা প্রকাশ করেছেন। তবে তিনি সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের নাম নেননি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ