ঢাকা, সোমবার 5 November 2018, ২১ কার্তিক ১৪২৫, ২৫ সফর ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বাংলাদেশ কান্ট্রি গেম অ্যাসোসিয়েশনের আত্মপ্রকাশ

স্পোর্টস রিপোর্টার: আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেছে গ্রামীণ খেলাধুলার সংগঠন বাংলাদেশ কান্ট্রি গেমস এসোসিয়েশন। হাডুডু, দাঁড়িয়াবান্ধা, গোল্লাছুট, বৌ-চি, সাতচারা, ডাংগুলি, কানামাছি ভোঁ ভোঁ- এ সবই গ্রামীণ দলগত খেলাধুলা। 

যা আজ প্রায় বিলুপ্তির পথে। এছাড়া মোরগলড়াই, লাটিম, দড়ি লাফানো, লাঠি খেলা, ঘোড় দৌড়, ষাড়ের লড়াই, ষোলকাঠি, পাঞ্জালড়াই একক খেলা। এসব খেলাকে জাতীয়ভাবে প্রতিষ্ঠা করতেই আত্মপ্রকাশ করেছে বাংলাদেশ কান্ট্রিগেমস অ্যাসোসিয়েশন। গতকাল রোববার সকালে রাজধানীর অলিম্পিক ভবনের অডিটরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঘোষণা করেন সভাপতি বিশিষ্ট উন্নয়ন সাংবাদিক ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ। উল্লেখ্য, গত ১০ জুন ২০১৮ অনুষ্ঠিত জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের নির্বাহী কমিটির সভায় বাংলাদেশ কান্ট্রি গেমস অ্যাসোসিয়েশনকে পরিষদের অধিভূক্তকরণের সিদ্ধান্ত হয় এবং ০১ জুলাই ২০১৮ প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়। শাইখ সিরাজ বলেন, বিলুপ্ত ও বিপন্ন দেশীয় ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলাকে দেশব্যাপী নিয়মিত অনুশীলনের মধ্যে আনাই অ্যাসোসিয়েশনের অন্যতম লক্ষ্য। বিশেষ করে দেশীয় খেলার ইতিহাস সংগ্রহ, শারীরিক, সামাজিক ও পারিপাশির্^ক উপযোগিতা নির্নয় করে দেশব্যাপী অনুশীলন চালু রাখার উদ্যোগ নেয়া হবে। সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের এক বছরের কর্মপরিকল্পনা, অগ্রাধিকারভিত্তিতে হাতে নেয়া গ্রামীন বিভিন্ন খেলাধুলার বিবরণ তুলে ধরা হয়। এছাড়া প্রবীণ ক্রীড়া সাংবাদিক মো. কামরুজ্জামানকে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ কান্ট্রি গেমস এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি নূরুল হাসান ফরিদী, আদিত্য শাহীন, সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ আহমেদসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ