ঢাকা, শুক্রবার 9 November 2018, ২৫ কার্তিক ১৪২৫, ২৯ সফর ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

অস্ট্রেলিয়ার জনবিরল এলাকায় এক পরিবারের ‘সবার’ মৃত্যু

৮ নবেম্বর, বিবিসি : অস্ট্রেলিয়ার জনবিরল একটি এলাকা থেকে শিশুসহ এক পরিবারের তিন সদস্যের মৃতদেহ উদ্ধারের কথা জানিয়েছে দেশটির পুলিশ। গত বুধবার ডারউইন শহরের এক হাজার কিলোমিটার দক্ষিণে একটি দুর্গম সড়কের কাছে ১৯ বছর বয়সী দুই প্রাপ্তবয়স্ক ও তাদের তিন বছর বয়সী সন্তানের মৃতদেহ পাওয়া যায় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

পুলিশ বলছে, একই পরিবারের তিন সদস্যের এ মৃত্যুর ঘটনাকে ‘সন্দেহজনক’ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে না। এর সঙ্গে ওই এলাকার তীব্র গরমের কোনো সম্পর্ক আছে কি না তাই খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

মৃতদেহগুলো যেখানে থেকে উদ্ধার হয়েছে, সেখান থেকে প্রায় সাড়ে চার কিলোমিটার দূরে ভাঙা একটি গাড়িরও সন্ধান পাওয়া গেছে। গাড়িটি ওই পরিবারেরই ছিল বলে ধারণা কর্মকর্তাদের।

নর্দার্ন টেরিটরি পুলিশ গাড়িটিতে থাকা ১২ বছর বয়সী এক কিশোরের খোঁজে অনুসন্ধান চালানোর কথাও জানিয়েছে। নিখোঁজ ওই কিশোর মৃত পরিবারটির সঙ্গে সম্পর্কিত কি না তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি।

শুক্রবার সর্বশেষ চারজনের এ দলকে উইলোয়ারা শহর ছেড়ে যেতে দেখা গেছে।  

 “যে পথে আমাদের অনুসন্ধান চলছে, তার মধ্যে একটি হল- সম্ভবত, উত্তপ্ত আবহাওয়ার কারণে তারা গাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে হাঁটা ধরেছিলেন, পরে সেই আবহাওয়াতেই মারা পড়েন। প্রথম দিকে আমরা একে গাড়ি দুর্ঘটনাজনিত ঘটনা ভেবেছিলাম। তা যে নয়, এখন আমরা নিশ্চিত,” বলছেন পুলিশ সুপার শন গিল। বুধবার এক ব্যক্তি উইলোয়ারার একটি হেলথ ক্লিনিকে প্রবেশের পরই পুলিশ বিষয়টি জানতে পারে।  “ওই ব্যক্তি এ অনুসন্ধানের খুবই গুরুত্বপূর্ণ অংশ, যদিও তার বক্তব্য বেশ বিক্ষিপ্ত,” বলেছেন সুপারিনটেন্ডেন্ট জোডি নবস। এ বিষয়ে আর বিস্তারিত জানাতে পারছেন না বলেও জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ