ঢাকা, শুক্রবার 9 November 2018, ২৫ কার্তিক ১৪২৫, ২৯ সফর ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে  সুষ্ঠু নির্বাচনের পথ রুদ্ধ হবে

 

স্টাফ রিপোর্টার : ২০ দলীয় জোটের বৈঠকে এলডিপির প্রেসিডেন্ট ড. কর্নেল অলি আহমদ বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়াকে অত্যন্ত অমানবিকভাবে হাসপাতাল থেকে কারাগারে নেওয়া হয়েছে। তাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, তার চিকিৎসার ক্ষেত্রে উচ্চ আদালতের আদেশ মানা হয়নি। এসময় তিনি বেগম জিয়ার মুক্তি দাবি করে বলেন, লাখ লাখ কোটি টাকা চুরি করা হচ্ছে কিন্তু তাদের বিচার হয়নি। অথচ খালেদা জিয়া কোন টাকা আত্মসাত করেননি। তাকে অমানবিকভাবে জেলে রাখা হয়েছে। খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা হোক। অনতিবিলম্বে তাকে জেল থেকে মুক্তি দেওয়া হোক। অন্যথায় সুষ্ঠু নির্বাচনের পথ রুদ্ধ হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার গুলশানে বিএনপির চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই বৈঠক বসে। এলডিপির প্রেসিডেন্ট কর্নেল অলি আহমদের সভাপতিত্বে বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য মাওলানা আবদুল হালিম, কল্যাণ পার্টির মেজর জেনারেল (অব.) ইবরাহিম, বিজেপির ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ, এলডিপির ড. রেদওয়ান আহমেদ, এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, জাপার মোস্তফা জামাল হায়দার, জাগপার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ব্যারেস্টার তাসমিয়া প্রধান, লেবার পার্টির ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ইসলামী ঐক্যজোটের অ্যাডভোকেট আব্দুর রকিব, ন্যাপের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শাওন সাদেকী প্রমুখ।

বৈঠক শেষে কর্নেল অবসরপ্রাপ্ত অলি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘হঠাৎ করে খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তিনি গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাইকোর্টের নির্দেশে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। কিন্তু তার চিকিৎসা কতটুকু হয়েছে তা চিকিৎসকরা না জানিয়ে ফের তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তাকে হত্যা করার উদ্দেশে এটা করা হচ্ছে। তার চিকিৎসা কতটুকু হয়েছে এ ব্যাপারে চিকিৎসকরা কোনো সার্টিফিকেট দেননি। তিনি বলেন, এ মিটিংয়ে আমাদের দাবি তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা হোক। অনতিবিলম্বে তাকে জেল থেকে মুক্তি দেওয়া হোক। অন্যথায় সুষ্ঠু নির্বাচনের পথ রুদ্ধ হবে।

বেগম খালেদা জিয়াকে পিজি হাসপাতাল থেকে ডাক্তারের সনদ ছাড়াই কারাগারে নেওয়া হয়েছে। তাকে অত্যন্ত অমানবিকভাবে আদালতে নেওয়া হয়েছে। খালেদা জিয়াকে হত্যার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন তারা এক তরফা নির্বাচন করার জন্যই তারা একাজ করছে। খালেদা জিয়াকে তিনবারের প্রধানমন্ত্রী, সাবেক সেনাপ্রধানের স্ত্রী, মুক্তিযুদ্ধের ঘোষকের স্ত্রী উল্লেখ করে অলি বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ক্ষেত্রে উচ্চ আদালতের আদেশকে মানা হয়নি। 

তিনি বলেন,দেশের লক্ষকোটি টাকা চুরি হয়ে যাচ্ছে। বিচার হচ্ছে না। খালেদা জিয়াকে যে মামলায় সাজা দেওয়া হয়েছে সেই টাকা আত্মসাত হয়নি। 

এসময় তিনি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করে বলেন, নির্বাচনের আগে খালেদা জিয়াকে নির্বাচনের আগে মুক্তি না দেওয়া হলে দেশের জনগণ সেই ভোট মানবে না। 

এদিকে নির্বাচনের তাফসিল ঘোষণার প্রতিক্রিয়ায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমরা নির্বাচন কমিশনকে বলেছিলাম তফসিল পিছিয়ে দিতে। কিন্তু তারা পিছিয়ে দেয়নি। আমরা মনে করি এক তরফা নির্বাচন করার জন্য সরকারের ইচ্ছায় নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষণা করেছে। এই তফসিল জনগণ গ্রহণ করবে না।    

২০ দলে আরও ৩ দল: ২০ দলের বৈঠকে আরো ৩ দল যোগ দিয়েছে। দল তিনটি হলো-পিপলস পার্টি অব বাংলাদেশ, জাতীয় জন দল ও বাংলাদেশ মাইনরিটি দল। এই তিন দলের শীর্ষ নেতারা মির্জা ফখরুল, অলি আহমদ ও নজরুল ইসলামের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে ২০ দলে যোগ দেন। তবে নাম ২০ দলই থাকবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ