ঢাকা, মঙ্গলবার 18 December 2018, ৪ পৌষ ১৪২৫, ১০ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ইসি-আ’লীগের বক্তব্যে অশনি সংকেত: রিজভী

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না বলে ইসির কর্মকর্তা ও আওয়ামী নেতারা একই সুরে কথা বলছেন উল্লেখ করে তাদের এসব বক্তব্য অশনি সংকেত বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আজ সোমবার নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই উদ্বেগের কথা জানান।

রিজভী বলেন, বেশ কিছুদিন আগে সিইসি বলেছিলেন-বাংলাদেশে শতভাগ সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়, গত দুদিন আগে আরেকজন কমিশনার বললেন অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্ভব হবে না।

‘গতকাল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও বলেছেন- পৃথিবীর কোনো দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হয় না। বাংলাদেশেও শতভাগ স্বচ্ছ ও অবাধ নির্বাচন হবে না।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, আসন্ন নির্বাচন নিয়ে তাদের বক্তব্য এক আশঙ্কাজনক অশনি সংকেত। সিইসি ও ইসির বক্তব্য মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের অনিয়ম ও ভোট ডাকাতিতে উৎসাহিত করবে।

তিনি বলেন, তারা সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য শপথ নিয়েছেন, কিন্তু নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে না বলে যে বক্তব্য দিয়েছেন, তাতে তারা শপথ ভঙ্গ করেছেন। যে বক্তব্য অবৈধ শাসকগোষ্ঠীকেই উৎসাহ জোগাবে।

নির্বাচনের আগে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, পুলিশের বেপরোয়া আচরণ ও হয়রানিতে আবারও ‘ফেনী মার্কা’ নির্বাচনের আলামত পাওয়া যাচ্ছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে মামলা ও গ্রেফতার পাহাড়ি ঢলের মতো ধেয়ে চলেছে দেশব্যাপী।

‘বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর সীমাহীন জুলুমের পর এখন দিনরাত বাড়িতে বাড়িতে হানা দিয়ে তল্লাশির নামে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রহরায় সারা দেশকে দাস শিবিরে পরিণত করা হয়েছে।’

রিজভী আরও বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে না পেয়ে পরিবারের সদস্যদের ওপরও হামলা করছে, মারধর করছে কিংবা পরিবারের সদস্যদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটারদের হাবুডুবু খাওয়াতেই নির্বাচনী মাঠ জনশূন্য করা হচ্ছে। আওয়ামী লীগের রাজনীতি দেউলিয়া হয়ে গেছে বলেই জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে অনাচারে লিপ্ত হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ