ঢাকা, মঙ্গলবার 20 November 2018, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

প্রশাসন এবং পুলিশের ভূমিকা পক্ষপাতমূলক এখনও নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি হয়নি

স্টাফ রিপোর্টার: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের সাথে বৈঠক করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেক। গতকাল সোমবার বিকেল সোয়া ৫টার দিকে ড. কামালের বেইলি রোডের বাসভবনে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে ব্রিটিশ হাইকমিশনারের কাছে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি জানান ড. কামাল।
বৈঠকের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কামাল হোসেন বলেন, আমরা তাদের নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা, মনোনয়নপত্র বিলি ও জমা নেয়ার বিষয়ে জানিয়েছি। তত্ত্বাবধায়ক সরকার কিংবা নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন হোক এ কথাও জানিয়েছি। এই সরকার ব্যবস্থা এমন হবে যাতে- বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি এর প্রধান হন, তবুও আমাদের সমস্যা থাকবে না। তবে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার সাংবিধানিক কোনো ক্ষমতা থাকবে না। তবে নির্বাচন নিরপেক্ষ কিংবা বর্তমান সরকারের অধীনে যেভাবেই হোক আমরা নির্বাচন বয়কট করবো না।
ড. কামাল সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের দাবি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন। আমরা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। সঙ্গে সঙ্গে আমাদের বর্তমান আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। তবে আন্দোলন মানে এই না যে ভাঙচুর হবে। প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী যদি রেফারির ভূমিকা পালন করেন, পুলিশ প্রশাসন যদি নিরপেক্ষ না থাকে তাহলে তো ফেয়ার ইলেকশন হয় না। ড. কামাল বলেন, প্রশাসন এবং পুলিশের ভূমিকা পক্ষপাতমূলক। এখনও নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি হয়নি।
এর আগে গত ১৮ অক্টোবর রাজধানীর একটি হোটেলে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, ইইউভুক্ত দেশগুলোসহ ৩৭টি দেশের কূটনীতিক ও তাদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। সেদিন জোটের সাত দফা দাবি ও ১১টি লক্ষ্য নিয়ে নিজেদের ভাবনার বিষয়টি কূটনীতিকদের সামনে তুলে ধরেন ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ