ঢাকা, মঙ্গলবার 20 November 2018, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

তারেক রহমানের বিষয়ে ইসির কিছুই করার নেই

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান একাধিক মামলার দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী হলেও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার দেওয়ার ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনের কিছু করার নেই।
গতকাল সোমবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে অনুষ্ঠিত সভা শেষে এসব কথা বলেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় নির্বাচন কমিশনাররা উপস্থিত ছিলেন।
 হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আওয়ামী লীগ গত রোববার তারেক রহমানকে নিয়ে যে অভিযোগ কমিশনে দিয়ে গেছে সেটা নিয়ে ইসি সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। যেহেতু অনলাইনে উনি (তারেক রহমান) মনোনয়ন সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেছেন, উনি দেশে যেহেতু নাই, সেহেতু আচরণ বিধিমালা উনার জন্য প্রযোজ্য হবে বলে প্রতীয়মান হচ্ছে না। কিন্তু যেহেতু মহামান্য হাইকোর্টের একটি নির্দেশনা আছে, সে নির্দেশনা প্রতিপালন করা সকলের জন্য বাধ্যতামূলক।
ইসির সচিব আরো বলেন, এই মুহূর্তে এই বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কোনো করণীয় নেই।
গ্রেপ্তার হওয়া বিএনপির নেতাকর্মীদের তালিকা সম্পর্কে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, সেই তালিকা পর্যালোচনা করে দেখা যাচ্ছে যে মূলত তফসিল ঘোষণার আগেই কিছু কিছু মামলা হয়েছে। কিছু কিছু নেতাকর্মীর নাম রয়েছে। নির্বাচন কমিশন মনে করে পূর্ববর্তী ঘটনার জন্য নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত নিতে পারে না।
ইসি সচিব বলেন, ৮ তারিখের পরে গ্রেপ্তারের যে তালিকা দেওয়া হয়েছে সেখানে সুনির্দিষ্ট কার কী বিষয় রয়েছে সেটা নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মনে হয়েছে সেই ঘটনাগুলোরও পূর্ণাঙ্গ বর্ণনা না করায় এ বিষয়ে কমিশন কোনো সিদ্ধান্ত দেয়নি। তবে পরে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে।
গত রোববার মনোনয়নের জন্য প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার শুরু করে বিএনপি। গুলশানের বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে ওই সাক্ষাৎকার শুরু হয়। সেখানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। আর প্রার্থীদের সঙ্গে লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।
রোববারই প্রার্থী বাছাইয়ে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের অংশ নেওয়াকে নির্বাচনী আইনের লঙ্ঘন উল্লেখ করে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) লিখিত অভিযোগ দেয় আওয়ামী লীগ।
 রোববার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খানের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল এই লিখিত অভিযোগ দেয়। এ বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে কমিশন ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে বলে জানান ফারুক খান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ