ঢাকা, শুক্রবার 30 November 2018, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ছড়া

মুক্তি

শেখ বিপ্লব হোসেন

 

চারিদিকে কত্ত আলো!

আলোয় ভুবন ভরা,

হাত বাড়ালে কোথায় আলো?

অন্ধকার এ ধরা।

 

দিনের শেষে রাত্রি এলে

চাঁদমামা যেই হাসে,

আমরা অবুঝ স্বপ্নে ভাসি

থাকি তারই আশে।

 

ফুলের বাগে যে ফুল ফোটে

সে তো রাজার জন্য,

আমরা শুধু খেটেই মরি

হয়ে তাদের পণ্য।

 

আমরা চাষি ফসল ফলাই

অন্ন বিনে মরি,

নিজের জীবন বিলিয়ে দিয়ে

ওদের ভুবন গড়ি।

 

এমনি ভাবে যায় চলে দিন

রাত পোহাবে কবে?

আঁধার ভেঙে আমরা যদি

জাগতে পারি, তবে।

 

কেউ নয় পর

কাব্য কবির

 

এই যে দেখ সাগর, নদী

এই যে সবুজ গাঁ

এই যে দেখ ভোরের শিশির

ভিজিয়ে দ্যায় পা,

এই যে দেখ আমার গাঁয়ের

ছোট্ট কুঁড়েঘর,

সবাই আপন, সবাই আপন

নয়তো কেহ পর। 

 

এই যে দেখ পাহাড় তুমি

এই যে দেখ ঝরনা,

এরা সবাই ভালোবাসে

কেউ তোমার তো পর না। 

 

এই যে দেখ খোলা আকাশ

পুরোটাই নীল,

খোলা আকাশ নেয় যে কেড়ে 

কাব্য কবির দিল।

 

 

খোকার স্মৃতি

জাহাঙ্গীর অরণ্য

 

আমি মাগো চলে গেলাম

জলা পুকুর পারে

কেঁদো না আর খোকা বলে

অবুঝ মনের ভারে।

 

দুদিন বাদে মাটি ফুঁড়ে

আকাশ দেবো পাড়ি

তারার ধারে গড়ে নেবো

ঝলমলে এক বাড়ি।

 

আমায় যখন পড়বে মনে

বিজন নিশীথকালে

পুকুর ধারে যেয়ো চলে

খেলনা লয়ে কোলে।

 

হাজার তারার মাঝে আমি

মুখটা উঁচু করে

সারাটা রাত রবো চেয়ে

জলা পুকুর পারে।

 

ঘোমটা খুলে সরিয়ে ফেলো

হিজল পাতার থোকা

যেই তারাটা হাসছে একা

ওটাই তোমার খোকা।

 

 

কাকতাড়ুয়া

জান্নাতা নিঝুম শিল্পী

 

মাঠের মাঝে কাকতাড়ুয়া

ঠাঁই দাঁড়িয়ে থাকে,

মাঠে মাঠে ধানের ফসল

আনন্দে সব পাকে।

 

পাখি উড়ে ঝাঁকে ঝাঁকে

বসে ধানের আলে,

সেই খুশিতে গান ধরেছে

নৌকা মাঝির পালে।

 

হুতুম পেঁচা নাচে ডালে

ময়ূর পেখম মেলে,

পাখিগুলো নেচে নেচে

ধানের ভুঁইয়ে খেলে।

 

মুহাম্মদ (সাঃ)

এইচ এম কবির আহমেদ

 

মা’আমেনার কোলে দোলে

জান্নাতী ওই ফুল,

তাঁর ঘ্রাণেতে হাসলো আরব

হাসলো ভুবন কূল।

 

আঁধার-ঘেরা ভুবন সেদিন

হাসলো ফুলের ঘ্রাণে,

উঠলো রবি আঁধার টেলে

জাগলো আলো প্রাণে।

 

দূর হলো জালিম-জুলুম 

অন্যায় অনাচার,

ফিরে পেলো শান্তি স্মারক

নেই যে হা-হাকার।

 

বিশ্ব-নবীর আগমনে 

ধরলো পাখি সুর,

ধ্বংস হলো ঘৃণ্য কালো,

কাটলো আঁধার-ঘোর।

 

সুরভী ওই গন্ধ ভরা 

ফুটলো মরুর ফুল,

তিনি মোদের প্রিয় নবী

মুহাম্মদ রাসুল।

 

 

ছড়ার ভেতর 

শাফায়েত হোসেন

 

ছড়ার দেশে যাবো আমি

ছড়া লিখে খেলব,

ছড়ার দেশে উড়েউড়ে

স্বপ্নডানা মেলব।

 

ছড়ার হাটে হাঁটবো আমি

মেঘের বেগে  ছুটব,

ফুলের ভেতর ছড়ার গন্ধে

পাপড়ি মেলে ফুটব।

 

ছন্দ শিখে ছড়ার ভেতর

জগৎ ঘুরে জানব,

আঁধার ভেঙে ছন্দ দিয়ে

ঊষার আলো আনব।

 

ছন্দ লিখবো ছড়ার তালে

বীরের মতো চলব,

সত্য-ন্যায়ের কথা আমি

ছড়ার মাঝে বলব।

 

ছড়ায়- ছড়ায় কথা বলে

সবার সুখে হাসব,

ছড়ার ভেতর স্বপ্ন বুনে

রঙিন নায়ে ভাসব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ