ঢাকা, সোমবার 3 December 2018, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

রংপুরের ৬ টি আসনে মনোনয়ন বাতিল ১৪ ॥ বৈধ ঘোষণা ৪৬

রংপুর অফিস : আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুরের ৬ টি নির্বাচনি এলাকার ৪৬ টি মনোনয়নপত্র বৈধ  ঘোষণা করেছেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হাবিব। এছাড়া ১৪ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।
এর ফলে রংপুর-৬ পীরগঞ্জ আসনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা এবং স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরি, রংপুর-৩ সদর আসনে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদসহ জেলার মোট ৬টি আসনে এখন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৬ জনে।
গতকাল রোববার সন্ধ্যায় রংপুরের জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা এনামুল হাবীব যাচাই-বাছাই শেষে এসব মনোনয়নপত্র বাতিল করেন বলে উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে তাদের কেউ বিল খেলাপী, ঋণ খেলাপীসহ বিভিন্ন কারণে তাদের মনোনয়নপত্র ত্রুটি থাকায় বাতিল করা হয়েছে। এ জেলার মোট ৬টি সংসদীয় আসনে মোট ৬০টি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছিলো।
রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, রংপুর-১ (গঙ্গাচড়া) আসনের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আসাদুজ্জামান বাবলুসহ ১৪ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। গঙ্গাচড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে দেয়া পদত্যাগপত্র জমা দিলেও গেজেট প্রকাশিত না হওয়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আসাদুজ্জামান বাবলুর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন না পেয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়ে গঙ্গাচড়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। ওই সময় দল তাকে বহিষ্কার করলেও পরবর্তীতে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে দল তাকে সদস্য পদ ফিরিয়ে দেয়। বিল খেলাপির অভিযোগে একই আসনের অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী সিএম সাদিকেরও মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে বলে জানান তিনি। রংপুর-২ (তারাগঞ্জ ও বদরগঞ্জ) আসনে মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয় সতন্ত্র প্রার্থী কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা বিশ্বনাথ সরকার বিটু এবং জাসদের তারাগঞ্জ উপজেলা সভাপতি কুমারেশ চন্দ্র রায়। বিটু বদরগঞ্জ উপজেলার আওয়ামী লীগের উপজেলা চেয়ারম্যান ছিলেন। রংপুর-৩ (সদর ও সিটি কর্পোরেশন) আসন থেকে মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফুলু সরকর ও নাজমুল হকের। রংপুর -৪ (কাউনিয়া ও পীরগাছা) আসন থেকে মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে জাতীয় পার্টির মোস্তফা সেলিম বেঙ্গল, বিএনপির আমিনুল ইসলাম রাঙ্গার। রংপুর- ৫ (মিঠাপুকুর) আসন থেকে মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে বিএনপির ডাক্তার মমতাজ হোসেন ও শাহ সোলায়মান আলম ফকিরের। এছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী আলিম মন্ডল ও মুসলীমলীগের মওদুদা আক্তারের। রংপুর-৬ (পীরগঞ্জ) আসনে মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী বেলাল হোসেনের।
এদিকে মনোনয়ন বাতিলকে পূর্বপরিকল্পিত ষড়যন্ত্র দাবি করে আসাদুজ্জামান বাবলু বলেন, “আমি বিধি সম্মতভাবেই উপজেলা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়ে পদত্যাগপত্রটি দিয়েছি। কিন্তু রিটার্নিং কর্মকর্তা বলছেন পদত্যাগ পত্রটি গেজেট আকারে প্রকাশ না হওয়ায় আমার মনোনয়ন বাতিল হয়েছে। এটি পূর্বপরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের বহিঃপ্রকাশ। আমি এ ব্যাপারে আপিল করব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ