ঢাকা, সোমবার 3 December 2018, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রামে বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থীদের মনোনয়ন বাতিল

চট্টগ্রাম ব্যুরো : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাছাইবাছাই শেষে চট্টগ্রামে বাতিল করা হয়েছে  বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট প্রার্থীর মনোনয়ন। যাদের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে তাদের অনেকেই বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী। রোববার চট্টগ্রাম রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে এ যাচাই-বাছাই অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রাম জেলা রির্টানিং কার্যলয়ের থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।
ঋণখেলাপী এবং নানা ক্রটির কারণে যাদের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে তারা হলেন- (চট্টগ্রাম-১) মীরসরাই আসনে বিএনপির শাহিদুল ইসলাম চৌধুরী, দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিম ও মোশাররফ হোসেন।
(চট্টগ্রাম-২) ফটিকছড়ি আসনে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা গিয়াস উদ্দীন কাদের চৌধুরী ও জাকের পার্টির আবদুল হাই। (চট্টগ্রামম-৩) সন্দ্বীপ আসনে বিএনপির প্রার্থী সাবেক সংসদ সদস্য মোস্তফা কামাল পাশা ও জাসদ (ইনু) আবুল কাশেম।
চট্টগ্রাম-৪ বিএনপির আসলাম চৌধুরী, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বাকের ভুঁইয়া, (চট্টগ্রাম-৬) রাউজান আসনে বিএনপির সামির কাদের চৌধুরী।
চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী) আসনে বিএনপির সংসদ সদস্য প্রার্থী মীর মোহাম্মদ নাছির, তার ছেলে ব্যারিস্টার মীর হেলাল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. নাছির, তৃণমূল বিএনপির অ্যাডভোকেট মাসুদুল আলম।
(চট্টগ্রাম-৭) রাঙ্গুনিয়া আসনে বিএনপির তিন প্রার্থী গিয়াস উদ্দীন কাদের চৌধুরী, আবু আহমেদ হাসনাত ও আবদুল আলীম।
চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী) আসনে বিএনপির ভাইস- চেয়ারম্যান, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোরশেদ খানের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় তার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে বলে নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে।
(চট্টগ্রাম-১২) পটিয়া আসনে এলডিপির প্রার্থী কেন্দ্রীয় এলডিপির শিল্প-বাণিজ্য সম্পাদক এম ইয়াকুব আলী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু তালেব বেলালী।
 (চট্টগ্রাম-১৩) আনোয়ারা-কর্ণফুলী আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমদ, বিএনএফ প্রার্থী নারায়ন রক্ষিত ও গণফোরামের উজ্জল ভৌমিক।
(চট্টগ্রাম-১৪) চন্দনাইশ আসনে তরিকত ফেডারেশনের প্রার্থী মোহাম্মদ আলী ফারুকী, স্বতন্ত্র মনিরুল ইসলাম, মো. শাহজাহান ও জসিম উদ্দীন।
(চট্টগ্রাম-১৫) সাতকানিয়া- লোহাগড়া আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী দক্ষিণ জেলা জামায়াতের আমীর জাফর সাদেক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুর জব্বার।
তবে, নগরীর তিনটি গুরুত্বপূর্ণ সংসদীয় আসনে বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থীরা ধানের শীষ প্রতীকে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের হেভিওয়েট প্রার্থীদের সঙ্গে লড়বেন
এসব আসন হল-চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালী-বাকলিয়া) নগর বিএনপির কারাবন্দী সভাপতি ডা: শাহাদাত হোসেন তিনি লড়বে নৌকা প্রতীকের হেভিওয়েট প্রার্থী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এর সঙ্গে।
চট্টগ্রাম-১০ আসনে বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান তিনি লড়বে আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী প্রার্থী ডা. আফছারুল আমিন এর সঙ্গে।
চট্টগ্রাম-১১ (বন্দর-পতেঙ্গা) আসনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী । তিনি লড়বেন আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের প্রার্থী সংসদ সদস্য এম এ লতিফ এর সাথে।
চট্টগ্রামে ভোটকেন্দ্র বেড়েছে ৫৯টি: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রামে ভোটকেন্দ্র বেড়েছে ৫৯টি। পাশাপাশি ভোটকক্ষ ও ভোটার সংখ্যাও বেড়েছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রামে ১ হাজার ৮৯৯ কেন্দ্র ও ১০ হাজার ৬৯২ কক্ষে ভোট হবে। দশম সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম জেলায় ভোটকেন্দ্র ছিল ১৮৪০টি, ভোটকক্ষ ৯ হাজার ৮৬৭টি। ইতোমধ্যে তালিকা চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য নির্বাচন কমিশনে (ইসি) পাঠিয়েছে জেলা নির্বাচন অফিস।
জেলা নির্বাচন অফিসার মো. মুনীর হোসাইন খান বলেন,‘ভোটকেন্দ্র ও কক্ষের তালিকা চূড়ান্ত করে অনুমোদনের জন্য ইসিতে পাঠানো হয়েছে। পাঁচ বছরের ব্যবধানে চট্টগ্রামে ভোটার বেড়েছে ৭ লাখ। এছাড়া অনেক কেন্দ্রের অবকাঠামো পরিবর্তন হয়েছে। তাই ভোটকেন্দ্র বাড়াতে হয়েছে।’ যোগ করেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা।
তালিকা অনুযায়ী, মিরসরাই আসনে ১০৪, সদ্বীপে ৭৯, ফটিকছড়িতে ১৩৬, সীতাকুন্ডে ১০৮, হাটহাজারীতে ১৪০, রাউজানে ৮৪, রাঙ্গুনিয়ায় ৯৬, বোয়ালখালীতে ১৭০, কোতোয়ালীতে ১৪৪, বন্দরে ১১৭, পাহাড়তলীতে ১৪৩, পটিয়ায় ১১১, আনোয়ারায় ১০৬, চন্দনাইশে ১০৪, সাতকানিয়ায় ১৪৭ ও বাঁশখালী আসনে ১১০টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে
চট্টগ্রামে সংসদীয় আসন ১৬টি। মহানগর ও উপজেলা নিয়ে এসব আসন গঠিত। ইতোমধ্যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লড়তে আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।
১৬ আসনে মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ১৮০টি। এর মধ্যে বোয়ালখালীতে সর্বোচ্চ ১৫টি এবং রাউজানে সর্বনিম্ন ৪টি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে। রোববার (২ ডিসেম্বর) মনোনয়ন যাচাই-বাছাই হবে।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য তৈরি চূড়ান্ত ভোটার তালিকা অনুযায়ী, চট্টগ্রাম জেলায় ভোটার সংখ্যা ৫৬ লাখ ৩৬ হাজার ২৫৪ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ২৯ লাখ ১১ হাজার ২১৬ ও মহিলা ভোটার ২৭ লাখ ২৫ হাজার ৩৮ জন।
দশম সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম জেলায় ভোটার সংখ্যা ছিল ৪৯ লাখ ২২ হাজার ৪৭৭ জন। পুরুষ ভোটার ২৫ লাখ ১৪ হাজার ৫৭৫ ও মহিলা ভোটার ২৪ লাখ ৭ হাজার ৯০২ জন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ