ঢাকা, শুক্রবার 7 December 2018, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ডুমুরিয়ায় বিএনপি জামায়াতের নেতাকর্মী সহ ১২ জনের নামে গায়েবী মামলা 

ডুমুরিয়া (খুলনা) সংবাদদাতা, ৫ ডিসেম্বর: চুকনগরে রাস্তার উপরে মাসাধিককাল ধরে ফেলে রাখা একটি বাসে আগুন লাগার ঘটনায় দুই ইউনিয়নের বিএনপির সভাপতি সাধারণ সম্পাদক সহ ১২ জনের নাম উল্লেখ সহ আরও ২৫/৩০ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে থানায় মামলা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য শনিবার দুপুর ২টার দিকে চুকনগর-যশোর মহাসড়কের নরনিয়া বাস টার্মিনালের সন্নিকটে উক্ত বাসটিতে কে বা কারা আগুন ধরিয়ে দেয়। যার নং-(যশোর-ব-১১৫৯)। এ ঘটনায় বাসের মালিক নরনিয়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক সরদারের পুত্র আবাদুস সাত্তার বাদী হয়ে ওই দিন রাতে ডুমুরিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-০২ তারিখ-০১/১২/২০১৮। 

মামলার আসামীরা হলেন তার প্রতিবেশী খোকন মেল্যার পুত্র পল্লী চিকিৎসক আব্দুল গনি ও তার ভাই আব্দুল কাদের, জিন্নাত আলী শেখের পুত্র বিএনপি কর্মী ইউনুস আলী ও আনিসুর রহমান, খুলনা জেলা বিএনপির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হবি, আটলিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি এম এ সালাম ও তার পুত্র আবুল কালাম, বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সরদার দৌলত হোসেন, সাবেক ছাত্রদল নেতা সিরাজুল ইসলাম, মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারন সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন, মালতিয়া গ্রামের কামরুল ইসলাম শেখ এবং জামায়াত কর্মী নরনিয়া গ্রামের জাকির হোসেন। এ ঘটনায় পুলিশ শনিবারেই পল্লী চিকিৎসক আব্দুল গনিকে আটক করে। রোববার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ডুমুরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাবিল হোসেন বলেন, বাস মালিক থানায় এসে মামলা করেছে। মামলার ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ রোববার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই সাইফুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে তার তদন্তকাজ শুরু করেছেন। নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে মামলটির চার্জশীট দেয়া হবে এবং নিরীহ কাউকে অভিযুক্ত করা হবে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ