ঢাকা, মঙ্গলবার 11 December 2018, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৩ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

জলবায়ু পরিবর্তনে মস্তিষ্কের সক্ষমতা হ্রাস পাবে

১০ ডিসেম্বর, দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট : বিশ্বব্যাপী কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্যাসের নিঃসরণ যেভাবে বাড়ছে তাতে করে মানুষের মস্তিষ্কের সক্ষমতা কমে যেতে পারে। সম্প্রতি প্রকাশিত এক গবেষণায় এমনটাই দাবি করেছেন যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের (ইউসিএল) একদল গবেষক।

প্রকাশিত ওই গবেষণা নিবন্ধের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্ট। গবেষকরা বলছেন, বায়ুমন্ডলে মাত্রাতিরিক্ত গ্রীন হাউস গ্যাস আমাদের স্মৃতিশক্তি, মনোযোগ ও সিদ্ধান্তগ্রহণ ক্ষমতার ওপর নেতিবাচক প্রভাব বিস্তার করবে।

গবেষণা প্রতিবেদন অনুযায়ী, কর্মক্ষেত্রে বায়ুচলাচলের উপযুক্ত ব্যবস্থা না থাকায় কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্যাস ভেতরেই থেকে যাচ্ছে। যার কারণে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সফলভাবে তাদের কাজ শেষ করতে পারছে না। এতে করে তারা নিষ্ক্রিয় ও কাজের অযোগ্য হয়ে পড়ছে দিনের পর দিন।

গবেষকদের ভাষ্যমতে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে মানুষের বুদ্ধিবৃত্তিক যোগ্যতার ক্রমাবনতি ঘটবে। ফলে এটিই হবে আগামী দশকগুলোতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সমস্যা।

গবেষকদল এ সংক্রান্ত তথ্য-প্রমাণের দিকে ইঙ্গিত দিয়ে বলেন, কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্যাসের নিঃসরণ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের মস্তিষ্কের জ্ঞান সম্বন্ধীয় ও বুদ্ধিবৃত্তিক সক্ষমতাও কমতে থাকবে।

প্রতিবেদনে গবেষণা নিবন্ধকে উদ্ধৃত করে বলা হয়, ‘একবিংশ শতাব্দীর মধ্যে বায়ুমন্ডলে কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্যাসের পরিমাণ যেভাবে বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে, তার প্রত্যক্ষ প্রভাব পড়বে মানুষের জ্ঞান সম্বন্ধীয় সক্ষমতায়। যা কোনোভাবেই এড়ানো সম্ভব হবে না।’

গবেষক দল বলছেন, কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্যাসের নিঃসরণের সঙ্গে মানুষের জ্ঞান সম্বন্ধীয় সক্ষমতা সংক্রান্ত গবেষণা এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে আছে। কিন্তু তারা এটাও বলেছেন, সম্ভাব্য সমস্যাটির ‘বিশ্ব প্রকৃতি’ সম্পর্কে জানতে হলে আরও গবেষণা প্রয়োজন।

চলতি বছরের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েলে স্কুল অব পাবলিক হেলথ এক গবেষণার পর জানায়, বায়ুদূষণের কারণে মানুষের বুদ্ধিবৃত্তিক জ্ঞানের লেভেল অনেকটা নীচে নেমে যাবে। গবেষকরা স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন, বায়ুদূষণ ও মানুষের জ্ঞান সম্বন্ধীয় সক্ষমতার মধ্যে একটা নিবিড় যোগসূত্র রয়েছে।

ইয়েলে স্কুল অব পাবলিক হেলথের চীনা বিজ্ঞানী জি ঝেন বলেন, ‘দুষিত বাতাস প্রত্যেক বছর মানুষের শিক্ষাগত সক্ষমতাকে কমিয়ে আনতে পারে। যা হতে পারে বেশ বড় রকমের পরিবর্তন।’

চলতি বছরের মে মাসে বায়ুমন্ডলে কার্বন ডাই-অক্সাইডের গড় লেভেল ছিল পৃথিবীর ইতিহাসের মধ্যে রেকর্ড সর্বোচ্চ। বায়ুমন্ডলে এ বছর প্রথমবারের মতো ৪১০ পিপিএম বা পার্টস পার মিলিয়ন সীমা ছাড়িয়ে যায়।

গত সোমবার পোলান্ডে জাতিসংঘ জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলন ২০১৮ শুরু হয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বিশ্ব এখন এক সংকটময় বাঁকে অবস্থান করছে। তাই এই পরিবর্তনে লাগাম টেনে ধরতে বিশ্ব নেতাদের চূড়ান্ত পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে সম্মেলন থেকে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ