ঢাকা, বুধবার 24 July 2019, ৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ জিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

নির্বাচন গ্রহণযোগ্য না হলে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ব্যাহত হবে: মার্কিন রাষ্ট্রদূত

সংগ্রাম অনলাইন : নির্বাচন গ্রহণযোগ্য না হলে এবং ভোটাররা নির্বিঘ্নে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে না পারলে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ব্যাহত হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। তিনি বলেন, বাংলাদেশের সুষ্ঠু নির্বাচন দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। সেই স্বার্থে নির্বাচনি সহিংসতা এড়ানো উচিত সব পক্ষের। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে সব পক্ষকেই নির্বাচনি সহিংসতা এড়ানোর আহ্বান জানাই। সহিংসতা গণতন্ত্রের কোনও পন্থা হতে পারে না। তাই নির্বাচনি সহিংসতা চায় না যুক্তরাষ্ট্র। আমরা সংঘাতহীন নির্বাচন দেখতে চাই।

আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংকালে তিনি এসব কথা বলেন। সেতুমন্ত্রীর দফতরে এই ব্রিফিং হয়।

এ সময় রাষ্ট্রদূত বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোনো ধরনের সহিংসতা কাম্য নয়। সহিংসতা পরিহার করে উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচনী প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকার জন্য তিনি সব পক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

রবার্ট আরও বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে সবাই সমান সুযোগ ভোগ করুক। আশা করছি, নির্বাচন কমিশন এটা নিশ্চিত করবে। বাংলাদেশে গণতন্ত্র মজবুত হোক, এটাই চায় যুক্তরাষ্ট্র। তিনি বলেন, আমি তিন বছরের অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে এখানে এসেছি। এরই মধ্যে আমি এ দেশটাকে নিজের দেশ বলেই মনে করি। আমরা চাই, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সব পক্ষ শাম্ত থাকুক।

ব্রিফিংয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচনি সহিংসতায় বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আওয়ামী লীগ। তবে এই পরিস্থিতিতে নেতাকর্মীদের সংযত ও সহনশীল থাকার নির্দেশ দিয়েছি আমরা।

এর আগে গত মঙ্গলবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের মার্কিন রাষ্ট্রদূত জানান, সংসদ নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ প্রচারণা দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। একই সঙ্গে দেশটি নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দলের অবাধ অংশগ্রহণের সুযোগও দেখতে চায়। গণমাধ্যম ও বিরোধী দলগুলো যেন তাদের মতামত প্রকাশ করতে পারে। যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচন পর্যেবক্ষন করবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ