ঢাকা, শুক্রবার 14 December 2018, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৬ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

পিরোজপুরে আলহাজ্ব শামীম সাঈদীর প্রচারণার মাইক ভাঙচুর ॥ আহত ২॥ গ্রেফতার ২

পিরোজপুর সংবাদদাতা: পিরোজপুর-১ আসনে ২০ দলীয় ঐক্য জোটের ধানের শীষের প্রার্থী আলহাজ্ব মোঃ শামীম সাঈদীর প্রচারণার সময় গত বুধবার রাত ৮:৩০ মিনিটে স্বারূপকাঠী বন্দরে যুবলীগের নেতৃত্বে কতিপয় উচ্ছৃঙ্খল যুবক মাইক ভাংচুর করে এবং বিএনপির কর্মী অপু (২৪) এবং ড্রাইভার কেরমত (২৫) কে মারধর করে আহত করে। ওই এলাকার সন্ত্রাসী শামীম, শ্যামল ও শুভ মারধরের পরে হুমকি দেয় যে, শামীম সাঈদীর পক্ষের পুনরায় মাইকিং না করা হয়।

এছাড়া নাজিরপুরের পুলিশ নেছারিয়া মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ আঃ বারেক এবং ইউপি সদস্য নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে। পিরোজপুরে শামশী সাঈদী ধানের শীষ প্রতকি পাবার পর এ পর্যন্ত মিথ্যা ও গয়েবী মামলায় ২৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, আলহাজ্ব শামীম সাঈদীর পিতা প্রখ্যাত মুফাস্সীরে কুরআন আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী পিরোজপুর-১ আসন থেকে দু বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তারই ধারবাহিকতা এবং ক্লীন ইমেজে তার পুত্র শামীম সাঈদীর জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। এ ব্যাপারে জামায়াতে ইসলামীর নাজিরপুর থানা আমীর আঃ রাজ্জাক জানান, মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী এমপি থাকা কালে এলাকায় কোন নিয়োগ বাণিজ্য ছিলনা। ছিলনা চাঁদাবাজি, মাস্তানি, টেন্ডারবাজী, ভূমি দস্যুতা। এলাকার পুলিশ আওয়ামীলীগ প্রতিপক্ষ শামীম সাঈদীর পক্ষে কাউকে কোথাও মাঠে নামতে দিচ্ছে না। অথচ আওয়ামী প্রার্থী প্রতিদিন মোটরসাইকেল বহর ও গাড়ী বহর নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছে। পুলিশ ধানের শীষের পোস্টার লাগাতে পর্যন্ত দিচ্ছে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ