ঢাকা, বুধবার 19 December 2018, ৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বিএনপি জামাত দক্ষিনাঞ্চলের অর্থনীতিকে পঙ্গু করে দিয়েছিলো -কেসিসি মেয়র

রামপাল (বাগেরহাট) সংবাদদাতা ॥ খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আঃ খালেক বলেছেন আমি রামপাল মংলার মানুষের কাছে ঋনী । আমার রক্ত দিয়ে হলেও আমি রামপাল মংলার মানুষের ঋন শোধ করতে পারবো না। আপনারা ভোট দিয়ে আমাকে এই এলাকার এমপি নির্বাচিত করেছিলেন। এবারও নৌকায় ভোট দিয়ে আপনাদের উন্নয়ন বুঝে নিবেন। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৪ টায় রামপালের ঝনঝনিয়া স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত আওয়ামীলীগ প্রার্থী হাবিবুন নাহার এর নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বিগত সময়ে আমরা আপনাদের কাছে যে ওয়াদা করেছিলাম ,জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তার থেকে অনেক বেশী আপনাদের দিয়েছি। রামপাল মংলার মানুষের ভাগ্যউন্নয়ন করেছে আওয়ামীলীগ সরকার। ২০০১ সালে জামাত বিএনপি সরকার গঠন করেছে । তারা ক্ষমতায় থাকাকালীন মংলা বন্দর বন্দ করে দিয়েছিলো। তারা দক্ষিনাঞ্চলের অর্থনীতি ধ্বংস করে দিয়েছিলো । আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় এসে মৃতপ্রায় বন্দরকে সচল করেছে। সচল মংলা বন্দর এই অঞ্চলের অর্থনীতিতে অভাবনীয় পরিবর্তন এনেছে। আপনারা আবারও নৌকায় ভোট দিয়ে উন্নয়ন বুঝে নিবেন । দুপুরের পর থেকেই বৈরী আবহাওয়া এবং শীত উপেক্ষা করে হাজার হাজার মানুষ জনসভায় যোগ দেয়।  ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি আরাফাত হোসেন কচির সভাপতিত্বে সভায় সম্মানিত অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ প্রার্থী হাবিবুন নাহার। তিনি বলেন বলেন, সারাদেশে নৌকার গনজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় মানুষ আবারও নৌকায় ভোট দেবে। উন্নয়নের মাপকাঠিতে আওয়ামীলীগ শীর্ষে বলেও মন্তব্য করেন সম্মানিত অতিথি।  এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ মোঃ আবু সাইদ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আঃ রউফ, সাধারন সম্পাদক জামিল হাসান জামু,ভাইস চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হোসনেয়ারা মিলি,খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আবু হানিফ, হামিম নূরী, ,যুবলীগ সভাপতি নূরুল হক লিপন, নাসির উদ্দিন, সাবেক চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান, অধ্যক্ষ খালিদ হোসেন, মোতাহার রহমান, সরদার বোরহান উদ্দিন, চয়ন মন্ডল, ছাত্রলীগ সভাপতি হাফিজুর রহমান, শেখ সাদী, আঃ মান্নান, জালাল উদ্দিন দুলাল সহ রামপালের বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ