ঢাকা, বুধবার 19 December 2018, ৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

বিএসএমএমইউতে ক্যান্সার রোগীর গলা কেটে আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ক্যান্সার ওয়ার্ডে শাহনাজ আক্তার লিলি (৪০) নামের এক রোগী গলা কেটে আত্মহত্যা করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার ভোর পৌনে ৫টার দিকে হাসপাতালের পাঁচ তলায় লিলি আত্মহত্যা করেন বলে জানান তার স্বামী রফিকুল ইসলাম।
শাহবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মশিউর রহমান বলেন, খবর পেয়ে সকাল ৯টার দিকে বিএসএমএমইউতে গিয়ে শাহনাজ আক্তারের মৃতদেহ উদ্ধার করি। পরে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।
মশিউর রহমান জানান, মৃত শাহনাজ গত ৫ বছর ধরে  স্তন ক্যান্সারে ভুগছিলেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ব্যথা  সইতে না পেরে নিজের গলা ছুরি দিয়ে কেটে আত্মহত্যা করেছেন তিনি। তবুও বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএসএমএমইউ এর একজন ঊর্ধতন কর্মকর্তা জানান, ঘটনাটি সঠিক।  বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।
নিহতের স্বামী রফিকুল  ইসলাম জানান, গতকাল মঙ্গলবার ভোর পৌনে ৫টার দিকে হাসপাতালের পাঁচ তলায় লিলি আত্মহত্যা করেন। তাদের বাড়ি কিশোরগঞ্জে। তার স্ত্রী শাহনাজ সেখানকার একটি মাদ্রাসার সহকারি শিক্ষক ছিলেন। ২০১৩ সাল থেকে তিনি স্তন  ক্যান্সারে ভুগছিলেন। ঢাকা মেডিকেলে তার  একবার অস্ত্রোপচারও করা হয়।  এরপর বিভিন্ন হাসপাতালে তিনি চিকিৎসা নেন।  গত ৯ ডিসেম্বর তাকে বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয়। সেখানে তিনি কেমো নিচ্ছিলেন।
হাসপাতালে তার সঙ্গে থাকা বড় বোন সুরাইয়া আক্তার ও ভাগিনা হুমায়ুন বলেন, অসহ্য ব্যথায় মাঝেমাঝেই চিৎকার করতেন শাহনাজ। ভোরে ওয়ার্ডের ভিতরে সবাই যখন ঘুমিয়ে ছিল তখন ফল কাটার ছুরি দিয়ে নিজের গলা কাটার চেষ্টা করে সে।পরে তার চিৎকারে সবাই ঘুম থেকে উঠে তাকে রক্তাক্ত  অবস্থায় দেখতে পান। পরে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ