ঢাকা, শুক্রবার 28 December 2018, ১৪ পৌষ ১৪২৫, ২০ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

লড়াই হবে ধানের শীষ-নৌকা

জাকির হোসেন, সখিপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা : টাঙ্গাইল-৮ (সখিপুর-বাসাইল) আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০ডিসেম্বর নির্বাচনের দিন ভোটের লড়াইয়ে অবতীর্ণ হচ্ছে ৫ জন এমপি প্রার্র্থী। এরা হলেন-আ.লীগ মনোনীত প্রার্র্থী টাঙ্গাইল জেলা আ.লীগ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম ভিপি জোয়াহের (নৌকা), জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট প্রার্র্থী কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী বীরোত্তম এর কন্যা ব্যারিস্টার কুঁড়ি সিদ্দিকী (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টি প্রার্র্থী কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব কাজী আশরাফ সিদ্দিকী (লাঙ্গল), ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ প্রার্র্থী আব্দুল লতিফ মিয়া (হাতপাখা), ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি) শফি সরকার(আম)। প্রার্র্থী ৫ জন থাকলেও নির্বাচনী লড়াই হবে নৌকা ও ধানের শীষের মধ্যে। বাসাইল ও সখিপুর দুই উপজেলা নিয়ে টাঙ্গাইল-৮ আসন গঠিত। বাসাইল উপজেলায় মোট ভোটার ১ লাখ ৬০ হাজার ৩শত ৪৬ জন এবং সখিপুর উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ৮৮ হাজার ৭শত ১৫ জন। এর মধ্যে বাসাইলের তুলনায় সখিপুরে ১ লাখ ২৮ হাজার ৩শত ৬৯ জন ভোটার বেশী, আবার দুই উপজেলায় মোট ভোটার  ৩লাখ ৪৬ হাজর ৩শত ২৫ জন, এর মধ্যে প্রায় ১০ হাজার নারী ভোটার বেশী। 

নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ও ভোট প্রার্থনায় এগিয়ে আছেন নৌকা প্রতীক। আর ধানের শীষ দুই উপজেলায় পথসভায় প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। নৌকা প্রতীকের পক্ষে প্রার্র্থীর স্ত্রী কহিনুর, মেয়ে ডা.জাকিয়া ইসলাম জ্যোতি, ফাতেমা ইয়াসমিন রিতি এবং আ.লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা বিভিন্ন সামাজিক, পেশাজীবী, শ্রমিক সংগঠন একাট্রা হয়ে নৌকায় ভোট প্রার্থনা করছেন, অপরদিকে ধানের শীষের প্রার্র্থীর পক্ষে প্রার্র্থীর বাবা বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, মা নাসরিন সিদ্দিকী, বোন কুঁশি সিদ্দিকীসহ বিএনপি ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগসহ ঐক্যফ্রন্ট নেতা-কর্মীরা ধানের শীষে ভোট প্রার্থনা করছেন। তবে উপজেলা বিএনপি সভাপতি শাহজাহান সাজু, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি আতাউর রহমান আতোয়ার চেয়ারম্যান, সম্পাদক অধ্যাপক মীর জুলফিকার শামীম সহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী কারাগারে এবং প্রায় ৫শত নেতা-কর্মীর নামে কয়েকটি মামলা থাকায় নির্বাচনী প্রচারণা বাধাগ্রস্থ হচ্ছে বলে যুব আন্দোলন কেন্দ্রীয় আহবায়ক হাবিবুন্নবী সোহেল জানিয়েছেন। নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় ও ভোট প্রার্থনায় কোন প্রার্র্থী ভোটারদের মন জয় করতে পেরেছেন তা ৩০ ডিসেম্বর ভোট গ্রহন শেষে জানা যাবে। ভোট নিয়ে শংকা রয়েছে ভোটারদের মাঝে। সাধারণ ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে ৫ জন প্রার্র্থী থাকলেও  ভোটের লড়াই হবে ধানের শীষ-নৌকা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ