ঢাকা, বুধবার 02 January 2019, ১৯ পৌষ ১৪২৫, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাছাই পর্ব খেলতে হবে বাংলাদেশকে

স্পোর্টস রিপোর্টার : নতুন বছরের শুরুতেই বাংলাদেশ ক্রিকেটের একটা খারাপ খবর। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সরাসরি খেলতে পারবেনা টাইগাররা। ফলে ৫০ ওভারের ক্রিকেটে সরাসরি বিশ্বকাপ খেললেও টি-টোয়েন্টি সংস্করণে সরাসরি খেলা হাতছাড়া হলো বাংলাদেশের। ২০১৬ বিশ্বকাপের মতো ২০২০ বিশ্বকাপেও বাছাই পর্ব খেলে মূল পর্বের টিকিট নিশ্চিত করতে হবে সাকিব-তামিমদের। তবে সরাসরি খেলার সুযোগ না পেলেও বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্বপ্ন শেষ হয়ে যাচ্ছে না। 

বাছাই পর্ব খেলে মূল পর্বে যাওয়ার সুযোগ থাকছে টাইগারদের। বাংলাদেশের মতো সাবেক চ্যাম্পিয়ন ও তিনবারের ফাইনালিস্ট শ্রীলংকাকে বাছাই পর্ব খেলতে হবে। অন্যদিকে ক্রিকেটের নতুন পরাশক্তি হয়ে ওঠা আফগানিস্তান সরাসরি খেলার সুযোগ পাচ্ছে বিশ্বকাপে। গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সরাসরি খেলতে যাওয়া আট দলের নাম ঘোষণা করেছে আইসিসি। পাকিস্তান, ভারত, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট উইন্ডিজ ও আফগানিস্তান সরাসরি মূল পর্বে খেলবে।

 আর র‌্যাংকিংয়ের নবম স্থানে থাকা শ্রীলংকা ও দশম স্থানে থাকা বাংলাদেশ সহযোগী ৬টি দেশের সঙ্গে বাছাই পর্বে অংশ নেবে। সেখান থেকে চারটি দল মূল পর্বে খেলার সুযোগ পাবে, যাকে বলা হচ্ছে সুপার টুয়েলভ। সরাসরি বিশ্বকাপ খেলতে না পেরে হতাশ সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক বলেছেন, ‘আমরা সরাসরি বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে পারিনি। সেজন্য আমি হতাশ। তবে আমার দৃঢ় বিশ্বাস, আমরা বাছাই পর্ব খেলে মূল পর্বে জায়গা করে নিতে পারবো। নিজেদের দিনে বিশ্বের সেরা দলকেও হারাতে পারি আমরা। 

বিশ্বকাপের এখনও অনেক দেরি। এই ফরম্যাটে আমরা দিন দিন উন্নতি করছি। আশা করি, ওয়ানডের মতো এই ফরম্যাটেও আমরা বড় দল হয়ে উঠতে পারবো।’ ২০২০ সালের ১৮ অক্টোবর থেকে ১৫ নবেম্বর পর্যন্ত চলবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২০ হবে অস্ট্রেলিয়ায়। আইসিসির বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ আটটি দল সরাসরি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলতে পারবে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ