ঢাকা, বুধবার 02 January 2019, ১৯ পৌষ ১৪২৫, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

নতুন বছরে সবকিছু নতুন করে শুরু করতে চাই-সাব্বির রহমান 

স্পোর্টস রিপোর্টার : ক্যারিয়ারের খারাপ সময় পেছনে ফেলে নতুন বছরে সবকিছু নতুন করে শুরু করতে চান সাব্বির রহমান। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে সাব্বির প্রস্তুত হচ্ছেন বিপিএলের জন্য।  তবে নিষেধাজ্ঞার সময়টা কেমন কেটেছে এটা নিয়ে কথা বলেন সাব্বির। গতকাল মিরপুরে অনুশীলনের ফাঁকে সংবাদিকদের সাব্বির বললেন, ‘মানসিকভাবে খুব কঠিন। এই সময়টায় এনসিএল খেলেছি, বিসিএল খেলেছি। অনুশীলন করেছি। বাসায় ছিলাম পরিবারের সাথে। প্রায় পাঁচ মাস হয়ে গেছে, আর এক মাস বাকি আছে। দেখি এবার বিপিএলটা কী হয়।’ গত জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দ্বিতীয় ওয়ানডের পর ফেসবুকে এক সমর্থককে গালিগালাজ ও মারধরের হুমকি দেওয়ার অভিযোগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ছয় মাসের জন্য নিষিদ্ধ হন সাব্বির। নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হয় সেপ্টেম্বর থেকে। এর আগে তিনি জাতীয় ক্রিকেট লিগে দর্শক পিটিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেটে ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞা ও বিশ লাখ টাকা জরিমানা গুনেছিলেন। বাদ পড়েছিলেন বোর্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকেও।  ২০১৬ বিপিএলেও শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে বড় অঙ্কের আর্থিক জরিমানা করা হয়েছিল তাকে। 

নিষিদ্ধ হওয়ার আগে জাতীয় দলে পারফরম্যান্স ভালো ছিল না সাব্বিরের। বিতর্কিত ঘটনাগুলোই তার পারফরম্যান্সে প্রভাব ফেলেছে? সাব্বির অবশ্য তা মনে করেন না, ‘আমার কাছে তেমন প্রভাব পড়েছে বলে মনে হয় না। পারফরম্যান্স তো সব সময় আসবে না। আপনি চাইলেই ১০০ মারবেন এর কোনো নিশ্চয়তা নেই। আমি চেষ্টা করেছি নিজের প্রস্তুতি ঠিকমতো করার জন্য। আসলেই অনেক বড় হুমকি। কাল রাতে প্রতিজ্ঞা করেছি, ২০১৮ আমার অনেক খারাপ কেটেছে। ভুলে গেছি। আজ (গতকাল) নতুন বছরের প্রথম দিন, সামনে তাকিয়ে আছি এখন।’ আগামী মে মাসে বিশ্বকাপ। তবে বিশ্বকাপ নয়, আপাতত সাব্বিরের ভাবনাজুড়ে শুধুই বিপিএল। এখানে ভালো করে জাতীয় দলে জায়গা ফিরে পেতে চান তিনি, ‘জাতীয় দল সবার জন্যই  খোলা আছে। বিপিএলটা আমার জন্য অনেক বড় জায়গা। আমার জীবনে অনেক বড় টুর্নামেন্ট। ইনশাআল্লাহ আমি চেষ্টা করব আমার ন্যাচারাল ক্রিকেটটা খেলার জন্য। আর বিশ্বকাপ অনেক দূরে আছে এখনো। আপাতত বিপিএল নিয়ে চিন্তা করছি। আমি যদি বিপিএলে ভালো পারফর্ম করি সুযোগ থাকবে আমার (জাতীয় দলে জায়গা ফিরে পাওয়ার)। আমি চেষ্টা করব বিপিএলে ভালো কিছু করার। তারপর বিশ্বকাপে সুযোগ।’ 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ